এক পিস পেঁয়াজের দাম আড়াই টাকা

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৩২ পিএম, ৩১ অক্টোবর ২০১৯

এই যে শুনছেন, পেঁয়াজের কেজি কত? আজ দুপুর আনুমানিক ১টায় রাজধানীর আজিমপুর ছাপড়া মসজিদের সামনে একটি মুদি দোকানের সামনে রিকশা থামিয়ে এক ভদ্রমহিলা দোকানির উদ্দেশ্যে এ প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন। জবাবে দোকানি বললেন, দামাদামি করবেন না আপা, একদাম ১৫০ টাকা।

ভদ্রমহিলার পাশে বসা আজিমপুর ভিকারুননিসা নূন স্কুলে পড়ুয়া মেয়েকে রিকশার হুড শক্ত করে ধরে বসতে বলে রিকশার সিট থেকে নেমে খানিকটা নিচুস্বরে দোকানিকে ১০০ গ্রাম পেঁয়াজ মেপে দিতে বললেন। ভদ্রমহিলার বেশভূষা বেশ পরিপাটি। ১০০ গ্রামে সাইজে খুব বড়ও নয়, খুব ছোটও নয় এমন ছয়টি পেঁয়াজ উঠল। তিনি হেসে বললেন, ১৫ টাকায় পেলাম ৬টি, তাহলে ১টি পেয়াজের দাম পড়লো আড়াই টাকা।

onion

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তার স্ত্রী ওই ভদ্রমহিলা বলেন, আগে পেঁয়াজ কিনতাম কেজি দরে আর এখন দাম বৃদ্ধির কারণে ১০০ গ্রাম করে কিনতে বাধ্য হচ্ছি। রান্নাবান্নায় পেঁয়াজ ব্যবহারের অভ্যাস না থাকলে পেঁয়াজ খাওয়া ছেড়েই দিতাম বলে উষ্মা প্রকাশ করলেন ওই ভদ্রমহিলা।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে পেঁয়াজের দামের ঝাঁঝ বৃদ্ধিতে বিপাকে পড়েছেন নগরের বাসিন্দারা। পেঁয়াজের দাম বাড়তে বাড়তে আজ খুচরা বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ১৫০ টাকায় ঠেকেছে। তবে বাজারভেদে কোথাও কোথাও ১৪০ টাকা দরেও বিক্রি হতে দেখা গেছে। অব্যাহত দাম বৃদ্ধির কারণে পেঁয়াজ খাওয়া কমিয়ে দিয়েছে বহু পরিবার। মাত্র মাস দুয়েক আগেও বহু পরিবারের কর্তা যারা এক কেজির কমে পেঁয়াজ কিনতেন না তারা এখন পরিমাণ কমিয়ে ১০০ গ্রাম থেকে ২৫০ গ্রাম করে পেঁয়াজ কিনছেন।

onion

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, সরকারের মন্ত্রী আমলারা পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হচ্ছেন।

আজিমপুর পলাশীবাজারের বাইরে কৃষি বিপণন অধিদফতরের পুরোনো একটি বাজারদরের তালিকা ঝুলতে দেখা গেল। গত ১৭ মের বাজারদর অনুযায়ী দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ক্রয় মূল্য ২০ টাকা থেকে ২৫ টাকা ও বিক্রয় মূল্য ২২ থেকে ২৮ টাকা। আর আমদানিকৃত পেঁয়াজ প্রতি কেজি ক্রয়মূল্য ১৮ থেকে ২০ টাকা ও খুচরা মূল্য ১৯ থেকে ২২ টাকা লেখা দেখা যায়। মাত্র ছয়মাসের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম ছয়গুণ বেড়েছে।

onion

দোকানিরা বলছেন, তারা বেশি দামে কিনে আনেন তাই বেশি দামে বিক্রি করতে বাধ্য হন। জমি থেকে নতুন পেঁয়াজ না তোলা পর্য়ন্ত পেঁয়াজেরর দাম নিয়ন্ত্রণে আসবে না বলে তারা মনে করেন। প্রতিবেশী দেশ ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়ায় পেয়াজের বাজারে সরবরাহ সংকট দেখা দেয়। ফলে মাস দুয়েক পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণহীন।

এমইউ/এনএফ/পিআর