‘নাগরিক সুবিধা সম্প্রসারণের মাধ্যমে শহরের চাপ কমাতে হবে'

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৬ পিএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৯

পরিকল্পিত গ্রামীণ উন্নয়নের মাধ্যমে নাগরিক সুবিধা সম্প্রসারণ করে শহরের ওপর চাপ কমাতে হবে বলে জানিয়েছেন আলোচকরা।

শনিবার (৯ নভেম্বর) সেগুনবাগিচায় গণপূর্ত অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ‘জেলা ও উপজেলা শহরের জন্য পরিকল্পনা’ শীর্ষক সেমিনারে আলোচকরা এ কথা বলেন।

সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সভাপতি পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. এ কে এম আবুল কালাম, সহ-সভাপতি পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. আকতার মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক পরিকল্পনাবিদ ড. আদিল মুহাম্মদ খান, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব শহীদ উল্লা খন্দকার, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন অনুবিভাগ) ড. কাজী আনোয়ারুল হক প্রমুখ।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সহ-সভাপতি পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. আকতার মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশ সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ‘আমার গ্রাম-আমার শহর’। এর মাধ্যমে প্রত্যেক গ্রামে নগরীর সুবিধা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। পরিকল্পিত গ্রামীণ উন্নয়নের মাধ্যমে নাগরিক সুবিধা সম্প্রসারণ করে শহরের ওপর চাপ কমানো যেতে পারে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব শহীদ উল্লা খন্দকার বলেন, পরিকল্পনাবিদদের অংশগ্রহণ ছাড়া সুষ্ঠু নগরায়ন বা উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাদের এবং গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং অন্য মন্ত্রাণালয়ে পরিকল্পনাবিদদের প্রয়োজন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ মন্ত্রাণালয় দেশব্যাপী কাজ করছে।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন অনুবিভাগ) ড. কাজী আনোয়ারুল হক বলেন, ‘আমার গ্রাম -আমার শহর’ এ অঙ্গীকার বাস্তবায়নে শুধু স্থানীয় সরকার নয়, সমন্বিত উদ্যোগ প্রয়োজন। গ্রামীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো করার লক্ষ্যে কৃষি জমি নষ্ট হচ্ছে, জল প্রবাহ ব্যাহত হচ্ছে। গ্রামীণ পরিবেশকে বসবাসযোগ্য রেখে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে হবে। এজন্য উপজেলা পর্যায়ে পরিকল্পনাবিদদের পদ সৃষ্টি করতে হবে।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারণ সম্পাদক পরিকল্পনাবিদ ড. আদিল মুহাম্মদ খান বলেন, আমরা দিন দিন বসবাস যোগ্যতা হারাচ্ছি। গ্রামের জন্য পরিকল্পনা করলে, ঢাকা অবাসযোগ্য হতো না।

বিআইপির সভাপতি পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. এ কে এম আবুল কালাম বলেন, দেশের ৬৩ শতাংশ মানুষ গ্রামে বাস করে, কিন্তু কর্মসংস্থানের অপ্রতুলতার কারণে তারা শহরমুখী হন। শহরগুলো সুগঠিত নয় এবং কাঠামোগত দিক থেকে অনেক সমস্যা রয়েছে। এ লক্ষ্যে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা দরকার।

এএস/এএইচ/এমকেএইচ