রোহিঙ্গাদের দলে টানছে নিষিদ্ধ জেএমবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:১৯ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

দেশে জঙ্গি কার্যক্রমের দায়ে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি) এবার তাদের দলে টানছে রোহিঙ্গাদের। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে কাজ শুরু করেছে তারা।

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) ভোরে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট এলাকা থেকে জেএমবির দুই সক্রিয় সদস্যকে আটকের পর এ তথ্য জানিয়েছে র‍্যাব-৭।

ভোরে একটি যাত্রীবাহী বাসে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ জঙ্গি লিফলেট ও জিহাদি বইসহ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির দুই সক্রিয় সদস্যকে আটক করা হয়।

আটক দুইজন হলেন-রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী থানার আব্দুর রহিমের ছেলে আব্দল্লাহ আল সাঈদ (৩৫) ও কক্সবাজারের টেকনাফ নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১ এর বাসিন্দা আব্দুল নবীর ছেলে মো. ইসমাইল (৩৩)।

Rohinga-(2)

সহকারী পুলিশ সুপার ও র‍্যাবের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহমুদুল হাসান মামুন জাগো নিউজকে বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীনের (জেএমবি) দুই সক্রিয় সদস্যের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারে র‍্যাব-৭। এই সক্রিয় সদস্যরা জঙ্গি উস্কানিমূলক বিভিন্ন জিহাদি বই ও লিফলেট প্রচার করার জন্য বাসে করে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাচ্ছিলেন। এই সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) ভোরে পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট এলাকায় একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে র‍্যাব। এ সময় বিভিন্ন যাত্রীবাহী বাস তল্লাশিকালে দূর থেকে র‍্যাবের চেকপোস্ট দেখে জেএমবির ওই দুই সক্রিয় সদস্য পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‍্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে তাদের আটক করে।’

তাদের কাছে থাকা ব্যাগে তল্লাশি করে বিপুল পরিমাণ জঙ্গি উস্কানিমূলক লিফলেট এবং কিছু জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

গ্রেফতারকৃতদের একজন মিয়ানমারের নাগরিক বলে জানান সহকারী পুলিশ সুপার মাহমুদুল হাসান মামুন। তিনি বলেন, ‘জেএমবির সক্রিয় এই দুই সদস্য নিজেদের জিহাদের জন্য প্রস্তুত করতে ও অন্যদেরও জিহাদে উদ্বুদ্ধ করার জন্য বিভিন্ন জিহাদি বই ও লিফলেট নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের টেকনাফে যাচ্ছিলেন।’

এসআর/এমকেএইচ