লঞ্চে ওঠার সময় মিরপুরের জোড়া খুনের দুই আসামি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২৬ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯

রাজধানী মিরপুর-২ নম্বর সেকশনের গৃহকর্ত্রী রহিমা বেগম ও গৃহকর্মী সুমি আক্তারকে হত্যাকারী দুজনকে গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

বুধবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় লঞ্চে বরিশাল পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে সদরঘাট এলাকা থেকে রমজান ও ইউসুফ নামে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়।

ডিবি পশ্চিম বিভাগের (পল্লবী জোন) সিনিয়র এসি শাহাদাত হোসেন সুমন জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের কারণ হিসেবে ডিবি জানতে পারে, মিরপুর-২ নম্বর সেকশনের ওই ভাড়া বাড়িতে অনৈতিক কাজ হতো। সেই কাজে সহযোগিতা করতেন রমজান ও ইউসুফ নামে দুই দালাল। এই অনৈতিক কাজের টাকার ভাগবাটোয়ারা নিয়ে কিছুদিন ধরে রমজান ও ইউসুফের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলছিল রহিমার। মঙ্গলবার দুজন রহিমার বাসায় যান। সেখানে তাদের মধ্যে ঝগড়ার একপর্যায়ে প্রথমে গৃহকর্মী সুমি ও পরে রহিমা বেগমকে হত্যা করে পালিয়ে যান তারা।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) রাতে মিরপুর-২ নম্বর সেকশনের ‘এ’ ব্লকের ২ নম্বর সড়কের ৯ নম্বর বাড়ির চতুর্থ তলা থেকে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় রাতে বৃদ্ধার মেয়ে রশিদা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

এ ঘটনায় রহিমা বেগমের পালকপুত্র সোহেলকে হেফাজতে নিলেও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

পুলিশ জানায়, রহিমা বেগম বিবাহিত হলেও মিরপুরের ওই বাড়িতে তিনি একা থাকতেন। সোহেল মাঝে মাঝে থাকতেন। রোববার পিরোজপুরের মেয়ে সুমি রহিমার বাড়িতে কাজ নিয়েছিলেন বলে জানা গেছে।

এআর/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]