‘শিশুর বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে কমিউনিটি ক্লিনিক’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৭ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

কমিউনিটি ক্লিনিক শিশুর প্রারম্ভিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বলে জানিয়েছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

তিনি বলেন, তৃণমূলে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে ১৪ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে এশিয়া প্যাসিফিক রিজিওনাল আরলি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট কনফারেন্স ২০১৯ এর দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে মেলিয়া হোটেলের গ্রান্ডবল রুমে ইসিডি বাস্তবায়ন ও ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। সেশনে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে গর্ভকালীন, মাতৃত্বকালীন ও প্রসূতিদের সেবাসহ বিভিন্ন জরুরি স্বাস্থ্যসেবা ও বিনামূল্যে ৩০ প্রকার ওষুধ দেয়া হচ্ছে, যা নিরাপদে সন্তান প্রসব, নবজাতকের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও শিশুর প্রারম্ভিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, শিশুর নিরাপদে বেড়ে ওঠার জন্য প্রয়োজন সুস্বাস্থ্য, পর্যাপ্ত পুষ্টি, নিরাপত্তা, শেখার সুযোগ ও দায়িত্বশীল প্রতিপালনকারী।

পরিবেশের উন্নয়ন, সুরক্ষা ও টেকসই বিষয়ে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের দেশগুলোর আরও বেশি দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বায়ু, পানি ও শব্দ দূষণ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের চেয়ে শিশুর বেশি ক্ষতি করে। এজন্য শিশুদের নিরাপদ, সুরক্ষিত ও বৈষম্যহীন পৃথিবী গড়তে এবং সে লক্ষ্য আজ থেকেই পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এর আগে ৪ ডিসেম্বর কনফারেন্সের দ্বিতীয় দিনে প্রাকৃতিক পরিবেশ ও ইসিডি, নার্সিং কেয়ারের ক্ষেত্রে পরিবেশ দূষণ ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব, রিজিওনাল ও গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ ফর ইসিডি ও বিভিন্ন বিষয়ে পেপার প্রেজেন্টেশন উপস্থাপিত হয়।

এমইউএইচ/এএইচ/এমকেএইচ