রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০২ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদের ২০২০ সালের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার (৯ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ অনুমোদনের কথা জানান। তিনি বলেন, ‘সংবিধানের ৭৩ (২) ধারা অনুযায়ী, সাধারণ নির্বাচনের পর সংসদের প্রথম অধিবেশনের সূচনায় এবং প্রতি বছরের প্রথম অধিবেশনের শুরুতে রাষ্ট্রপতি সংসদে ভাষণ দেন।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘সেই ভাষণটি প্রণয়ন করে রুলস অব বিজনেসের বিধান অনুযায়ী ক্যাবিনেটে প্লেস করতে হয়। এটা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের দায়িত্বে পড়ে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সব মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে তথ্য-উপাত্ত ও লিটারেচার নিয়ে উপস্থাপন (মন্ত্রিসভা বৈঠকে) করেছে। এটা অনুমোদনও করে দেয়া হয়েছে।’

খসড়া ভাষণে ৯টি বিষয় বিস্তারিতভাবে এসেছে জানিয়ে খন্দকার আনোয়ার বলেন, ‘এর মধ্যে রয়েছে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি ও সামস্টিক অর্থনীতির চিত্র, দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে গৃহীত পদক্ষেপ ও সাফল্য, রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নে বিভিন্ন খাতে গ্রহণ করা কর্মসূচির রূপরেখা।’

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন, দেশি ও বিদেশি কর্মসংস্থান, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনি কর্মসূচির প্রসারের বিষয়ও ভাষণে এসেছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তিনি আরও বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রক্রিয়ার অগ্রগতি, বৈদেশির সম্পর্কের ক্ষেত্রে অর্জিত সাফল্য এবং প্রশাসনিক নীতি, কৌশল, উন্নয়ন দর্শন ও অগ্রযাত্রার দিক নির্দেশনার বিষয়টিগুলো এসেছে রাষ্ট্রপতির ভাষণে। আমরা এখন এটা একটু দেখব, কোনো গ্রামাটিক্যাল ভুল আছে কি না। কোনো ছোটখাট মিসটেক আছে কি না। এটা ঠিক করে দুটি কপি হবে- একটা ইংরেজি, আরেকটি বাংলা।’

আগামী ১৯ ডিসেম্বরের (বৃহস্পতিবার) পর ভাষণ ছাপার জন্য প্রেসে পাঠানো হবে বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

আরএমএম/আরএস/জেআইএম