পা ছুঁয়ে সালাম করতেই এনামুরকে বুকে টেনে নিলেন নূর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০৪ পিএম, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯

সচিবালয়ে নিজের দফতরে সাবেক সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর আসতেই আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। এগিয়ে গিয়ে পা ছুঁয়ে সালাম করতেই প্রতিমন্ত্রী এনামুরকে বুকে টেনে নেন নূর।

বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমানের দফতরে এলে এমন দৃশ্যের অবতারণা হয়। আসাদুজ্জামান নূরকে দেখে আবেগতাড়িত হওয়ার কথা ও নিজেদের মধ্যে কথপোকথনের বর্ণনা নিজের ফেসবুক পেজে তুলে ধরেছেন প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী লিখেছেন, ‘তখন আমি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ছাত্র। বাবা নেই। মা, চার ভাই ও তিন বোন। সন্তানদের মধ্যে আমি সবার বড়। টানাটানির সংসার। তার ওপর মেডিকেলের বইপত্র কেনা। অনেক খরচ। শেষমেশ বাড়তি রোজগারের আশায় শিক্ষার্থী অবস্থায় কাজ নিলাম একটা মার্কেট রিসার্চ প্রতিষ্ঠানে। ইস্ট এশিয়াটিক অ্যাডভার্টাইজিং লিমিটেড।’

‘চট্টগ্রাম শহরে দোকানে দোকানে ঘুরি। গোল্ড ফ্লেক সিগারেটের নতুন তিনটা মোড়ক- এর মধ্যে কোনটা বেশি পছন্দের তা নিয়ে জরিপ করি। প্রতিদিনের মজুরি মাত্র ২০০ টাকা। আমার কাজে সন্তুষ্ট হয়ে অল্প কিছুদিনের মাথায় মজুরি বেড়ে দাঁড়াল দিনপ্রতি ৪০০ টাকা। জীবনের প্রথম উপার্জন। বেশ চলে যেত। সংসার চালানো থেকে ভাই-বোনের লেখাপড়ার খরচ- মোটামুটি চলনসই পর্যায়ে নিয়ে এলাম নিজের পরিবারকে।’

Nur-(2)

এনামুর স্ট্যাটাসে আরও লিখেছেন, ‘সে সময় নূর ভাই ছিলেন ওই কোম্পানির জেনারেল ম্যানেজার। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। এই কথা এজন্য বলছি যে, আজ (বৃহস্পতিবার) অপরাহ্ণে মন্ত্রণালয়ে আমার অফিস কক্ষে এসেছিলেন শ্রদ্ধেয় নূর ভাই। আসাদুজ্জামান নূর। জনপ্রিয় অভিনেতা, সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী এবং নীলফামারী-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য। প্রথম দর্শনেই পা ছুঁয়ে সালাম করতেই আমাকে বুকে জড়িয়ে নিলেন তিনি।’

‘বললেন, এনাম তুমি যেভাবে অতীতের কথা মনে করো, এই সময় এমনটা কেউ করে না! সবাই অতীত ভুলে যায়। আচ্ছা। আমি কেন ভুলবো? আমরা অতীতটাই তো আমার অহংকার আর গৌরবের। তাই না!’ লিখেছেন প্রতিমন্ত্রী।

একসময়ের দাপুটে অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর ২০১৪ সালের ১৩ জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

অপরদিকে ডা. এনাম দেশের বৃহত্তম বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল ‘এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল’র প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। তিনি স্পেকট্রাম গার্মেন্ট ধস, তাজরিন ফ্যাশনসে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও রানা প্লাজা ধসে হাজার হাজার আহতের চিকিৎসা সেবা দিয়ে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। পরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। তিনি ঢাকা-১৯ (সাভার-আশুলিয়া) আসনের সংসদ সদস্য। গত ৭ জানুয়ারি গঠিত নতুন সরকারের মন্ত্রিসভায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান এনামুর রহমান।

আরএমএম/এসআর/এমকেএইচ