কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানার মালিককে গ্রেফতারের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৪ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

পাটকল শ্রমিকদের ১১ দফা দাবি মেনে নেয়াসহ কেরানীগঞ্জে প্রাইম প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দায়ী মালিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক সমাবেশে এ দাবি জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, কেরানীগঞ্জের প্রাইম প্লাস্টিক কারখানায় গত দুবছরে চারবার আগুন লেগেছে। এ বছরের এপ্রিল মাসেও আগুন লেগেছে। তখন ব্যবস্থা নিলে আজ ১৪ জন শ্রমিক পুড়ে অঙ্গার হতো না। কারখানার মালিক কি সরকার থেকেও শক্তিশালী? এখানে শ্রমিকের নিরাপত্তা বিষয়টি সম্পূর্ণ অবহেলা করা হয়েছে।

বক্তারা আরও বলেন, কারখানার নিরাপত্তার বিষয়টি মালিক সম্পূর্ণভাবে অবজ্ঞা করেছেন। আসলে তাদের নজর ছিল শ্রমিক শোষণ ও মুনাফার দিকে।

এসময় বক্তারা অবিলম্বে অগ্নিকাণ্ড ও শ্রমিক হত্যার দায়ে মালিক-শ্রম দফতরসহ সংশ্লিষ্ট সকলের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, নিহত শ্রমিকদের আজীবন আয়ের সমান ক্ষতিপূরণ, আহতদের ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার দাবি জানান।

খুলনা প্লাটিনাম জুট মিলে অনশনরত পাটকল শ্রমিক নিহত হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, শ্রমিকেরা একবার মজুরি থেকে বঞ্চিত হয়ে মারা যায়, আবার অগ্নিকাণ্ডে, বিল্ডিং ধসে মারা যায়। তাহলে শ্রমিকদের জীবনের নিরাপত্তা কোথায়?

তারা বলেন, শ্রমিকের জীবনমান উন্নয়নে ও পাট শিল্প রক্ষায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের ঘোষিত নতুন মজুরি কাঠামো কার্যকর করাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়ন করতে হবে।

সংগঠনের ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি জুলফিকার আলীর সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব বুলবুল, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট বিমল চন্দ্র সাহা, মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান লিপন প্রমুখ।

এএস/এসআর/এমকেএইচ