হাটহাজারী জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে মুনিরীয়ার মাহফিল

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন
মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন , আমিরাত প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০২:৫৮ এএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২০

চট্টগ্রাম হাটহাজারী জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম কাম কমিউনিটি সেন্টারে পবিত্র জশনে জুলুছে ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) ও ফাতেহা-এ ইয়াজদাহুম উদযাপন উপলক্ষে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ হাটহাজারী ফটিকছড়ি সমন্বয় পরিষদের উদ্যোগে শনিবার (১২ জানুয়ারি) বাদে জোহর হতে এশায়াত মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্বনবী (দঃ)’র সন্তুষ্টিতেই আল্লাহর সন্তুষ্টি উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের প্রতিষ্ঠাতা হযরত শায়খ ছৈয়্যদ গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আন্হু তার আধ্যাত্মিক কর্মকাণ্ড, সংস্কারমূলক জীবনাদর্শ, সুন্নীয়ত প্রচার ও যুব সংস্কারে গাউছিয়্যতময় সংগ্রামী জীবনের কারণে মুসলিম বিশ্বের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তার রেখে যাওয়া আদর্শ মুসলিম বিশ্ব অনুসরণ করলেই ইসলামের হারানো ঐতিহ্য ফিরে আসবে। রূহানী শক্তি দিয়ে সুন্নীয়ত প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তিনি এক যুগশ্রেষ্ঠ মডেল।

বর্তমানের মতো মুসলমানদের ক্রান্তিকালে এমন মনীষীর সোনালী জীবনাদর্শ তাদেরকে অত্যাচারিত, নিপীড়িত ও নির্যাতিত অবস্থা থেকে শান্তির পথ দেখাবে। তাই যাবতীয় ভুল বুঝাবুঝি বাদ দিয়ে সকলে তার আদর্শের পথে ফিরে আসুন।

ড. জালাল আহমদের সভাপতিত্বে মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ড. মুহাম্মদ আবুল মনসুর। বক্তব্য দেন, মাওলানা মোহাম্মদ ফোরকান, মাওলানা মোহাম্মদ রেজাউল করিম, মাওলানা মোহাম্মদ শাহেদুল আলম, মাওলানা মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন প্রমুখ।

মাহফিলে অনেক ব্যক্তি, স্থানীয় ব্যবসায়ী ও ধর্মপ্রাণ মুসলমান উপস্থিত ছিলেন। মিলাদ-ক্বিয়াম শেষে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ্র সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দরবারের প্রতিষ্ঠাতা হযরত গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আন্হুর ফুয়ুজাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

এমআরএম