এমপিরা না জানার কারণে প্রচারে অংশ নেন : ইসি সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২৫ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২০

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর বলেছেন, সংসদ সদস্যরা ইচ্ছা করে সিটি নির্বাচনে প্রচার করছেন ঠিক তা নয়। অনেক সময় অনেকে না জানার কারণে করে ফেলেন।

ঢাকা উত্তরের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলামের পক্ষে প্রচারণা চালাতে দেখা যায় ঢাকার সংসদ সদস্য সাদেক খানকে। এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী, সংসদ সদস্য, মন্ত্রীসহ সরকারের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারেন না।

আলমগীর বলেন, ‘বড় রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে কমিশন বৈঠক করেছে। কমিশন তাদের স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছে যেন এমপি কিংবা মন্ত্রীরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ না নেন। এরপরও যদি কেউ না জানার কারণে করেন, তাহলে সেটা…। আপনারা দেখবেন যে, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী (ওবায়দুল কাদের) আহ্বান করেছেন, এমপি-মন্ত্রীদের প্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য। তিনি তো একটা দলের সাধারণ সম্পাদক। আশা করি, আগামীকাল (১৫ জানুয়ারি) থেকে এ ধরনের কোনো বিষয় আসবে না। হয়তো অনেকে না জানার কারণে করে ফেলেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রার্থীদের আরচণবিধি দেয়া হয়েছে। তারা নিয়ে যান কিন্তু পড়েন না। সমস্যাটা হলো সেখানে।’ তবে সংসদ সদস্যের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়ার বিষয়ে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক অভিযোগ পাইনি বলেও জানান ইসি সচিব। এছাড়া পূজার কক্ষ বাদ দিয়ে বাকিগুলোতে ভোট হবে বলেও জানান তিনি।

গত দুদিনে নির্বাচনী প্রচারে উত্তেজনা, হামলার ঘটনা ঘটছে এ বিষয়ে কমিশনের কোনো কড়াকড়ি নির্দেশনা থাকবে কি-না জানতে চাইলে ইসির এ জ্যেষ্ঠ সচিব বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন কড়াকড়ি নির্দেশনা আগেই দিয়ে রেখেছে। কমিশনের নির্দেশে আমি নিজেও ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে কথা বলেছি। বলা হয়েছে, সব প্রার্থী যাতে নির্বিঘ্নে প্রচার কাজ করতে পারেন, কাজে যাতে বাধা না দেয়া হয়। এরপরও যদি আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসে, আইন অনুযায়ী যে ব্যবস্থা নেয়ার, তা নেয়া হবে।’

পিডি/এএইচ/পিআর