নার্সিং খাতে সাড়ে ৪ হাজার শূন্যপদে নিয়োগের নির্দেশ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৫৮ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০
ফাইল ছবি

নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি অধিদফতরের ৪ হাজার ৫০০ শূন্যপদে জনবল নিয়োগের নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। অধিদফতরের মহাপরিচালককে এ নিয়োগ প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া নতুন করে সিনিয়র স্টাফ নার্সের ১০ হাজার ও মিডওয়াইফের ৫ হাজার পদ সৃজনের প্রস্তাব প্রদানের জন্য মহাপরিচালককে বলা হয়েছে।

গত ১৩ জানুয়ারি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ প্রশাসন-১ অধিশাখার উদ্যোগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের শূন্যপদ পূরণ-সংক্রান্ত এক সভায় এসব নির্দেশনা দেয়া হয়। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালিক সভায় সভাপতিত্ব করেন।

সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, অনেক স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে পর্যাপ্ত অবকাঠামো নির্মিত হওয়া সত্ত্বেও জনবল নিয়োগ না হওয়ায় সেগুলো থেকে জনগণ সেবা পাচ্ছে না। জনবল সঙ্কট কাটিয়ে প্রতিষ্ঠানগুলো জাতীয় সাধারণ মানুষকে সর্বোচ্চ সেবা প্রদান করতে পারে তা নিশ্চিত করতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অনুমোদিত বিদ্যমান অন্যজনের বিষয়ে মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণের পর স্বাস্থ্য অধিদফতর এবং নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতর নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্নের জন্য স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিবকে (ভ্যন্তরীণ প্রশাসন ও শৃঙ্খলা) আহ্বায়ক এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের উপ-পরিচালককে (প্রশাসন) সদস্য সচিব করে সাত সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের যুগ্ম সচিব (বাজেট), স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বা তার প্রতিনিধি, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের উপসচিব (নার্সিং-১ ও ২) এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (প্রশাসন)।

সভায় যেসব পদের নিয়োগবিধি সংশোধন করা প্রয়োজন তা এক মাসের মধ্যে সংশোধন করার জন্য অতিরিক্ত সচিব (অভ্যন্তরীণ প্রশাসন ও শৃঙ্খলা) ও স্বাস্থ্য মহাপরিচালক ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

টারশিয়ারি, জেলা ও উপজেলা হাসপাতালগুলোতে সব আউটসোর্সিং নিয়োগ আগামী দুই মাসের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়। যেসব সিভিল সার্জন বা ইউএইচএফপিও নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পাদনা ব্যর্থ হবেন তাদের প্রত্যাহার এবং নিয়োগের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ ফেরত নেয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়।

আউটসোর্সিং রাজস্ব খাতে নিয়োগের বিষয় অর্থ মন্ত্রণালয় অর্থ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত সর্বশেষ নির্দেশনা ও নীতিমালা অনুসরণ করতে হবে বলে বলা হয়। এছাড়া জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নীতিমালা অনুযায়ী কনসালটেন্ট, সিনিয়র কনসালটেন্ট ও চিফ কনসালট্যান্টের পদ সৃজনের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতর প্রস্তাবনা তৈরি করে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগে প্রেরণ করবেন বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এমএসএইচ/পিআর