তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৪৩ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০
ফাইল ছবি

প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে সচেষ্ট থাকার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

তিনি বলেন, ‘বিশ্বায়নের এ যুগে জাতীয় উন্নয়ন ও অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে তথ্যপ্রযুক্তি ও টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন একান্ত অপরিহার্য। তাই ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে বিদ্যমান টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা ও তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করা অত্যন্ত জরুরি।’

‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা- ২০২০’ উপলক্ষে বুধবার (১৫ জানুয়ারি) এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত তিন দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’ অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে সন্তোষ প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তির অভাবনীয় বিস্তার টেলিযোগাযোগ খাতের গুরুত্বকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। মূলত টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা ভৌগলিক সীমারেখা অতিক্রম করে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বিশ্ববাসীকে এক কাতারে শামিল করেছে।’

আবদুল হামিদ বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি এবং টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার সুফল বাংলাদেশের সব অঞ্চলের জনগণের মধ্যে পৌঁছে দিতে বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ‘রূপকল্প-২০২১’ ঘোষণা করেছে, যা ইতোমধ্যে অনেকাংশেই বাস্তবায়িত হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সরকার তথ্যপ্রযুক্তি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা, বিভাগ ও কেন্দ্রীয় পর্যায়ে এর ব্যবহার নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো বিনির্মাণ অব্যাহত রেখেছে। ফলে দেশব্যাপী সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পর্যায়ে জনগণ ক্রমাগত তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে সম্পৃক্ত হচ্ছেন এবং জনগণ ঘরে বসেই তাদের মৌলিক নাগরিক সেবাসহ নানাবিধ সেবা পাচ্ছেন।’

রাষ্ট্রপতি ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা-২০২০’ এর সার্বিক সফলতা কামনা করেন।

এফএইচএস/এফআর/পিআর