পরিবেশমন্ত্রীর সাথে জাইকার চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভের দ্বিপাক্ষিক সভা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:১৩ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২০

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এবং জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থার (জাইকা) চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভের হিরাতা হিতোশির মধ্যে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা সভা আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আলোচনাকালে তারা দূষণ নিয়ন্ত্রণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, তথ্য সংগ্রহ, স্থানীয় পর্যায়ে গবেষণাগার প্রতিষ্ঠা, নতুন প্রযুক্তির ব্যবহারসহ বিভিন্ন নতুন প্রকল্পে জাইকার সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করেন। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, সচিব জিয়াউল হাসান এনডিসি, অতিরিক্ত সচিব ড. মো. বিল্লাল হোসেন, ড. এস. এম. মনজুরুল হান্নান, ড. আলমগীর মুহম্মদ মনসুরউল আলম ও মিজানুল হক চৌধুরী এবং জাইকার সিনিয়র রিপ্রেজেনটেটিভ কোজি মিতোমোরিসহ জাইকার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

জাইকার চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভের বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের জলবায়ু পরিবর্তনে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর অন্যতম। এজন্য, জলবায়ু পরিবর্তন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, অবকাঠামো নির্মাণ, পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে জাইকা বাংলাদেশের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে চায়। তিনি বলেন, সকল ক্ষেত্রেই টেকসই উন্নয়ন জাইকার অগ্রাধিকার। ডেল্টা প্লান গ্রহণ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ডেল্টা প্লান বাস্তবায়নেও জাইকার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

জাইকার চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভেরকে ধন্যবাদ জানিয়ে মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন বলেন, সকল প্রকার দূষণ রোধ এবং পরিষ্কার ও সবুজ বাংলাদেশ করতে বর্তমান সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। এক্ষেত্রে রাসায়নিক দূষণ নিয়ন্ত্রণ, ট্যানারি বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, সোলার প্যানেল সরবরাহে জাইকার সহায়তা পেলে বাংলাদেশে দূষণ নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম আরও জোরদার হবে। মন্ত্রী ভবিষ্যতে এ ধরনের পারস্পরিক আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এমইউ/এনএফ/এমকেএইচ