ভাইয়ের জন্য পাত্রী দেখতে যাওয়া হলো না দুই ভাইয়ের

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২২ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২০
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানার সামনে বেপরোয়া গতির বাসের চাপায় প্রাণ হারানো মোটরসাইকেলের দুই আরোহীর পরিচয় মিলেছে। জুয়েল শেখ (৪০) ও লিটন শেখ (৩৫) নামে এ দুজন সহোদর। তারা নিজেদের ছোট ভাই বাবুলের জন্য পাত্রী দেখতে যাচ্ছিলেন বাড্ডায়। পথেই দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।

শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেলে এ দুজনের মরদেহ শনাক্ত করেন তাদের আরেক ভাই সোহেল শেখ। দুপুর সোয়া ২টার দিকে উত্তরা পূর্ব থানার সামনের সড়কে অভি পরিবহনের বাসের চাপায় নিহত হন দুই ভাই

তাদের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বড়ইকান্দি গ্রামে। বাবার নাম হারুন শেখ। লিটন স্ত্রী, এক মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে গাজীপুর এলাকায় থাকতেন এবং সেখানে বালুর ট্রাকে কাজ করতেন। আর জুয়েল স্ত্রী ফরিদা ও দুই মেয়েকে নিয়ে রামপুরা মহানগর প্রজেক্ট এলাকায় থাকতেন এবং একটি রাইড শেয়ারিং কোম্পানির গাড়ি চালাতেন।

সোহেল জানান, সকালে জুয়েল মোটরসাইকেল নিয়ে গাজীপুরে যান লিটনের কাছে। সেখান থেকে লিটনকে নিয়ে বাড্ডা যাচ্ছিলেন আরেক ছোট ভাই বাবুলের বিয়ের জন্য পাত্রী দেখতে। কিন্তু পথেই দুর্ঘটনার শিকার হন দুজন।

দুর্ঘটনার পর অভি পরিবহনের ওই বাসের চালক সোহেলকে আটক করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে বাসটিকেও।

দুপুরে উত্তরা পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরাফাত জাগো নিউজকে জানান, বেপরোয়া বাস ওই দুজনের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে তারা ছিটকে পড়েন। গুরুতর আহতাবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন তিনি। তবে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ঢামেক হাসপাতালে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

জেইউ/এইচএ/পিআর