ওয়ার্ড উন্নয়ন পরিকল্পনায় সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ নিশ্চিতের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৪৫ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২০

ঢাকা সিটি করপোরেশনে ওয়ার্ডভিত্তিক উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়নে সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্স (বিআইপি)।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) রাজধানীর বাংলামোটরে প্ল্যানার্স টাওয়ারে ‘ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন : নগর পরিকল্পনাবিদদের পক্ষ থেকে নাগরিক ইশতেহার’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে নাগরিক ইশতেহার শীর্ষক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিআইপির সাধারণ সম্পাদক পরিকল্পনাবিদ ড. আদিল মুহাম্মদ খান।

তিনি বলেন, সিটি করপোরেশন এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যাবলি এবং দায়িত্ব মূলত স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন ২০০৯ দ্বারা নির্ধারিত। এই আইনের তৃতীয় তফসিলে বিশদভাবে কার্যাবলির বিবরণ দেয়া আছে। সাধারণ মানুষের প্রতিনিধি হবেন মেয়র ও কাউন্সিলর এবং নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলররা স্থানীয় জনগণের কাছে দায়বদ্ধ। স্থানীয় সরকারের সব কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রবিন্দু ওয়ার্ড কাউন্সিলকেন্দ্রিক হওয়া উচিত। এতে এলাকার মানুষের মধ্যে নিজের এলাকায় উন্নয়নে অংশীদার হওয়া এবং অংশগ্রহণের আগ্রহ জন্মাবে।

ড. আদিল মুহাম্মদ খান আরও বলেন, স্থানীয় মানুষ জানবে যে, তার যে কোনো কাজের জন্য এলাকার কাউন্সিলরের অফিসেই যেতে হবে এবং ওখানে গেলে কী ধরনের সেবা সে পাবে। এলাকার মানুষের সঙ্গে ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং অফিসের সরাসরি যোগাযোগ হবে। আমরা প্রায়ই এলাকায় মশানিধন, জলাবদ্ধতা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা প্রসঙ্গে জনসচেনতা ও জনসম্পৃক্ততার কথা বলি। যখন সাধারণ মানুষের সঙ্গে ওয়ার্ড কাউন্সিলরের যোগাযোগ তৈরি হবে, তখনই জনসম্পৃক্ততা তৈরি হবে। এভাবে সব কর্মকাণ্ডে ওয়ার্ড কাউন্সিলর জনগণকে সম্পৃক্ত করতে পারে। এ কারণে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের যে কোনো উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকতে হবে।

বিআইপি সভাপতি পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. আকতার মাহমুদ বলেন, সিটি করপোরেশনের সব সেবা ওয়ার্ড কাউন্সিলভিত্তিক হতে হবে। সব কেন্দ্রবিন্দু ওয়ার্ড কাউন্সিল হলে মানসম্মত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পেতে পারি। এতে জনগণের সঙ্গে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ততা বাড়বে।

বিআইপির উপদেষ্টা পরিষদের আহ্বায়ক পরিকল্পনাবিদ ড. গোলাম রহমান বলেন, নগর পিতাদের মানুষের সঙ্গে সম্পৃক্ততা আছে। ওয়ার্ড কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। তবেই অনেক রকম সমস্যা থেকে উত্তরণ সম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সহ-সভাপতি পরিকল্পনাবিদ মুহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, বোর্ড সদস্য পরিকল্পনাবিদ রেজাউর রহমানসহ অন্য পরিকল্পনাবিদরা উপস্থিত ছিলেন।

এএস/এএইচ/এমকেএইচ