সুনির্দিষ্ট তামাক কর নীতির পক্ষে অর্থনীতিবিদরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৩ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি ও মানুষের স্বাস্থ্য রক্ষায় দেশে সুনির্দিষ্ট তামাক কর নীতি প্রয়োজন বলে অভিমত জানিয়েছেন অর্থনীতিবিদরা।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কলাভবনে তামাক কর নীতিমালাবিষয়ক মতবিনিময় সভায় দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষকরা এ অভিমত প্রকাশ করেন।

সভায় ঢাবির অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও অর্থনৈতিক গবেষণা ব্যুরোর ফোকাল পারসন ড. রুমানা হক বলেন, ‘চার স্তরের তামাক কর থাকায় সিগারেট কোম্পানিগুলো নানাভাবে ট্যাক্স ফাঁকি দিচ্ছে। সুনির্দিষ্ট তামাক কর নীতিমালা না থাকার কারণে সাধারণ মানুষ ধূমপান না ছেড়ে একটি ব্র্যান্ড থেকে আরেকটি ব্র্যান্ডের দিকে ধাবিত হচ্ছে। একই সঙ্গে তামাক পণ্যের স্বল্প মূল্যের কারণে অল্প বয়সীদের মধ্যে ধূমপানের হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে দেশে সুনির্দিষ্ট তামাক কর নীতি প্রণয়ন অবশ্যম্ভাবী হয়ে পড়েছে।’

jagonews24

তিনি আরও বলেন, ‘সিগারেট ও বিড়ির ওপর সুনির্দিষ্ট কর নীতিমালা প্রণয়নের পাশাপাশি ধোঁয়াহীন তামাক পণ্যের ওপরও উচ্চহারে করারোপ করতে হবে। একইসঙ্গে অখ্যাত নানা তামাক কোম্পানিকে চিহ্নিত করে তাদের ওপর নজরদারি বাড়াতে হবে।’

ঢাবির অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সাহাদত হোসেন সিদ্দিকী বলেন, ‘সরকারের যদি লক্ষ্য থাকে দেশকে তামাক মুক্ত করবে তাহলে অবশ্যই সবার আগে ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকো থেকে সরকারি মালিকানা প্রত্যাহার করতে হবে। এটা নিশ্চিত না হলে তামাক প্রশ্নে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছানো যাবে না। একইসঙ্গে তামাক মুক্ত দেশ গড়ার স্বপ্ন থাকলে এখনই উচ্চ কর নীতি এবং সুনির্দিষ্ট কর নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে।’

জরুরিভিত্তিতে সুনির্দিষ্ট তামাক কর প্রণয়নের গুরুত্ব তুলে ধরেন ঢাবির অর্থনীতি বিভাগের আরেক অধ্যাপক ও অর্থনৈতিক গবেষণা ব্যুরোর পরিচালক অধ্যাপক ড. নাজমা বেগম।

এ সময় বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষকরা তামাক কর বিষয়ে তাদের মতামত তুলে ধরেন।

পিডি/এএইচ/এমকেএইচ