মনোনয়ন জমা দিলেন মহিউদ্দিন-রবিউল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩৫ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এবং বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী শেখ রবিউল আলম।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত ইটিআই ভবনে রবিউল আলম দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এবং মহিউদ্দিন বিকেল পৌনে ৩টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

মনোনয়ন জমা দেয়ার পর আওয়ামী লীগ প্রার্থী মহিউদ্দিন বলেন, ‘আমি মানুষের কাছে যাব, মানুষ যদি আমাকে গ্রহণ করে, নির্বাচিত হবো। আমরা ভাবতে চাই, একটি উৎসবমুখর, অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে। নির্বাচনের মাধ্যমে এ এলাকার জনগণ তাদের পছন্দমতো নেতা বেছে নেবেন। আমি চাই, জনগণ ভোট দিতে আসুক।’

তিনি বলেন, ‘রাজনীতি ও অর্থনীতি বিনির্মাণে যে সংযোগটুকু আছে, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি, সেসব অভিজ্ঞতা থেকে কর্মসংস্থান ও বিনিয়োগকে কীভাবে আরও গতিশীল করা যায়, সে চেষ্টা করব।’

বিএনপির শেখ রবিউল আলম বলেন, 'নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ভেঙে গেছে। এটা থেকেই রাজনৈতিক সংকট তৈরি হয়েছে। বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে নির্বাচন। (নির্বাচন) কমিশনের ভেতর সমস্যা রয়েছে। বেশকিছু প্রস্তাবনা আছে। যদি তা গ্রহণ করে কমিশন, তাহলে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেয়া সম্ভব।’

তিনি বলেন, ‘জনগণ যদি ভোট দিতে পারে এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচন যদি সরকার ও কমিশন দিতে পারে, তাহলে আওয়ামী লীগের পরাজয় নিশ্চিত।’

ঢাকা-১০ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম শাহাতাব উদ্দিন বলেন, ‘আজকে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। ছয় প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আমাদের প্রাথমিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। ভোটকেন্দ্র নির্ধারণ করেছি। এ আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হবে। ১১৭টি কেন্দ্র নির্ধারণ করেছি। সবগুলোতেই ইভিএমে ভোট হবে।’

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থী ছাড়া মনোনয়নপত্র সংগ্রহকারী অন্য প্রার্থীরা হলেন জাতীয় পার্টির হাজি মো. শাহজাহান, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের নবাব খাজা আলী হাসান আসকারী, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মিজানুর রহমান চৌধুরী এবং স্বতন্ত্র হিসেবে আ. মানান।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নতুন মেয়র ফজলে নূর তাপস ঢাকা-১০ আসন থেকে পদত্যাগ করে সিটি নির্বাচনে অংশ নিলে আসনটি শূন্য হয়।

পিডি/এসআর/এমএস