করোনার উপসর্গ গর্ভবতীর, পাশে দাঁড়াল পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩২ পিএম, ০৭ মে ২০২০

রাজধানীর বংশালের কসাইটুলির বাসিন্দা জাহিদুর রহমানের স্ত্রী সন্তানসম্ভবা। এই করোনাভাইরাস সংক্রমণের সময়ে হঠাৎ তার জ্বর ও গলাব্যাথা শুরু হয়। কী করবেন বুঝতে না পেরে মুঠোফোনে ডিএমপির লালবাগ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনারকে (ডিসি) বিষয়টি জানান। এরপরই দ্রুত ওই সন্তানসম্ভবা নারীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

বংশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহীন ফকির বলেন, ওই নারী ডিসি স্যারকে করোনা উপসর্গের বিষয়টি জানানোর পরই কার্যকারী ব্যবস্থা নিতে আমাকে জানানো হয়। বিষয়টি জেনে দ্রুত থানা এলাকার মহানগর জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ফোনে কথা বলি। ওই নারী গর্ভবতী এবং তার করোনা উপসর্গ আছে বিধায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেয়। এরপর ঢাকা মেডিকেলের পরিচালকের সঙ্গে ফোনে কথা বলে বিস্তারিত জানালে তিনি রোগীকে হাসপাতালে নেয়ার জন্য বলেন।

ওসি বলেন, পুলিশ ফোর্স নিয়ে ওই নারী ও তার স্বামীর জন্য পিপিই, মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস কিনে ৩২নং কসাইটুলীর জাহিদুর রহমানের বাসায় যাই। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তার এবং অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর পিপিই, হ্যান্ড গ্লাভস, মাস্ক পরিয়ে পুলিশের গাড়িতে করে ঢাকা মেডিকেল নেয়া হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অন্তঃসত্ত্বা নারীর করোনার নমুনা সংগ্রহ করেন এবং তাকে গাইনি ও প্রসূতি ওয়ার্ডে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিতে বলেন।

ওই নারী ও তার স্বজনরা জানান, তাকে হাসপাতালে ভর্তি না করে বাড়িতে থেকে চিকিৎসা করাতে চান তারা। তাদের এমন সিদ্ধান্তের পর আবারও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থবিধি মেনে ওই নারীকে নিজ বাসায় পৌঁছে দেয় বংশাল থানা পুলিশ।

জেইউ/এমএসএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]