উপনির্বাচনের সময় বাড়াতে রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে ইসি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:২৭ এএম, ২১ মে ২০২০

করোনাভাইরাসের কারণে কয়েকটি সংসদীয় আসনের উপনির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী সময় মতো করতে না পারায় আরও সময় বাড়াতে রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঈদুল ফিতরের পর কমিশন রাষ্ট্রপতি সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সময় বাড়ানোর বিষয়ে পরামর্শ গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হদা।

বুধবার অনলাইন জাতীয় পরিচয়পত্র সেবা কার্যক্রম এবং কার্ড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএসএম) সম্পর্কিত অনলাইন প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন সিইসি। এর আগে তিনি জুম মিটিংয়ের মাধ্যমে মাঠপর্যায়ের নির্বাচন কর্মকর্তাদের সঙ্গে যুক্ত থেকে অনলাইন প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন।

মেয়াদোত্তীর্ণ নির্বাচনের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় সংসদের শূন্য আসনে ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন (উপনির্বাচন) অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। দৈবদুর্বিপাকের এ সময়ের মধ্যে নির্বাচন করা সম্ভব না হলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে ভোট করতে পারেন। জাতীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে সিইসিকে সংবিধান ক্ষমতা দিয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে সম্ভব না হলে নির্বাচন কমিশন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে পরামর্শ করে সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন করতে পারে। এই সুযোগ রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির কাছে যাওয়ার সময় এখনও হয়নি। আমরা এ বিষয়ে আলোচনা করেছি। ঈদের পরে আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে যাব।’ সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুর কারণে গত ২ এপ্রিল শূন্য হওয়া পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণার জন্য রাষ্টপতির কাছে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তার কথা জানান সিইসি।

প্রসঙ্গত, সংসদীয় আসন শূন্য হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে বগুড়া-১, যশোর-৬ সংসদীয় আসনে সেটা মানা সম্ভব হয়নি। তবে সংবিধানে এও বলা আছে ‘দৈবদূর্বিপাকের কারণে’ উপনির্বাচন করার জন্য আরও ৯০ দিন পাওয়া যাবে। নির্বাচন কমিশন এখন সেই সুযোগ নিচ্ছে। এরপর রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে।

জুলাইয়ের মধ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে ঢাকা-৫, পাবনা-৪ শূন্য আসনে উপনির্বাচনে এখনও যথেষ্ট সময় আছে।

এইচএস/এমএআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]