নিজ সেলে নামাজ আদায় বন্দীদের, থাকছে বিশেষ খাবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ এএম, ২৫ মে ২০২০

ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় খুশির দিন পবিত্র ঈদুল ফিতর। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন। ঈদের চিরপরিচিত সেই আবহ এবার নেই কোথাও। তারপরও সীমিত পরিসরে চলছে সকল আনুষ্ঠানিকতা। একই চিত্র কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারেও।

প্রতি বছরের মতো ঈদের বিশেষ দিনটিতে বিশেষ খাবার পেলেও এবার একসাথে জামাতে নামাজ পড়তে পারেননি বন্দীরা।

করোনার প্রাদুর্ভাব এড়াতে এবার কারাগারে কারাবন্দিদের জামাতে অংশ নিতে দেয়নি কারা কর্তৃপক্ষ। তারা নিজ নিজ ওয়ার্ডে নামাজ আদায় করেছেন।

ঈদের আগদিন রোববার পর্যন্ত কারাগারে বন্দীর সংখ্যা ছিল ৮৭০০।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, প্রতিবছর কেরানীগঞ্জ কারাগারের ভেতরে বিশাল দু’টি মাঠে বন্দীদের নিয়ে একযোগে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। তবে এবার তারা নিজ নিজ ওয়ার্ডেই নামাজ পড়েছেন। কারাগারে বন্দীদের সঙ্গে ঈদ আনন্দে মেতে উঠেছেন কারা কর্মকর্তা ও কারারক্ষীরাও।

ঈদে বন্দীদের খাবাররের বিষয়ে তিনি বলেন, ভোর ৭টায় মুড়ি আর পায়েস দিয়ে ঈদ উদযাপন শুরু করেছেন কারাগারের বন্দীরা। ঈদের দিন দুপুরে বন্দীরা সাদাভাত, রুই মাছ আর আলুর দম পাবেন। আর রাতের বিশেষ আয়োজনে তারা পাবেন পোলাও, গরু বা মুরগীর মাংস, ডিম, মিষ্টান্ন এবং পান-সুপারি।

বিশেষ দিনে কেরানীগঞ্জ কারাবন্দিরা সেখানে খাবারের পাশাপাশি পরিবারের পাঠানো খাবারও খেতে পারলেও এবার বন্দীদের পরিবারের সাক্ষাৎ বন্ধ রেখেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এআর/এনএফ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]