ঈদের দিনে অচেনা জাতীয় ঈদগাহ ময়দান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৫৬ পিএম, ২৫ মে ২০২০

করোনা মহামারির কারণে এবার ঈদের চিরচেনা সেই পরিবেশ নেই রাজধানীসহ দেশের কোথাও। অন্যান্য বার যেমন নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের পদচারণায় মুখর থাকে জাতীয় ঈদগাহ ময়দান, এবার পরিস্থিতি ভিন্ন।

এবার জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের পরিবর্তে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতি বছর জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে রাষ্ট্রপতিসহ দেশের মন্ত্রী, সুপ্রিম কোর্টের বিচারক, সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যসহ ভিভিআইপি, ভিআইপি ও সর্বসাধারণ অংশগ্রহণ করেন। কিন্তু এবার জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি।

এবার পরিস্থিতি অন্যরকম থাকায় সকাল সাড়ে ৯টায় বঙ্গভবনের দরবার হলে পরিবারের সদস্য এবং কয়েকজন সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তাকে সঙ্গে নিয়ে ঈদের নামাজ পড়েছেন রাষ্ট্রপতি।

প্রতি ঈদে বঙ্গভবনের ক্রেডেনশিয়াল হলে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন রাষ্ট্রপ্রধান। স্ত্রী রাশিদা খানমসহ পরিবারের সদস্যরাও সে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেন। সারি বেঁধে সকলে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিক, দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি, শিক্ষাবিদ, কবি-সাহিত্যিক-শিল্পী, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, ধর্মীয় নেতারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেন। অতিথিদের সঙ্গে রাষ্ট্রপতি করমর্দনও করেন।

jagonews24

দরবার হলে হরেক পদের খাবারে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। শুভেচ্ছা বিনিময়ের ফাঁকে ঈদের শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রপতি। এক ফাঁকে দরকার হলে গিয়ে অতিথিদের খোঁজখবর নিতেন।

করোনাভাইরাস অতিমাত্রায় সংক্রামক বলে সব ধরনের অফিস-আদালত ও গণপরিবহন বন্ধ রাখা হয়েছে গত ২৬ মার্চ থেকে। এই সময় সবাইকে বাসায় থাকার, জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে এবারের ঈদের নামাজ ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে বাড়ির কাছের মসজিদে গিয়ে আদায় করার জন্য অনুরোধ করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

গত ১৪ মে আলেম-ওলামাদের সঙ্গে বৈঠক করে ধর্ম মন্ত্রণালয় একটি পরিপত্র জারি করে।

সেখানে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায়ের ব্যাপার এ সংক্রান্ত কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়।

জামাত শেষে কোলাকুলি এবং পরস্পর হাত মেলানো পরিহার করার জন্যও অনুরোধ করে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

এফএইচ/এনএফ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]