ঢামেকের সিটি স্ক্যান বিভাগে রোগী নেই কেন, প্রশ্ন জাফরুল্লাহর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০৬ পিএম, ০৩ জুলাই ২০২০

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) তার ফুসফুসের সিটি স্ক্যান করিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে। তিনি বলেছেন, তাদের মেশিন উন্নত, ব্যবহার ভালো, দক্ষ লোকবল রয়েছে। সবকিছু উন্নত হওয়ার পরও ঢামেকের সিটি স্ক্যান বিভাগে রোগী নেই। বিষয়টি নিয়ে সরকারের তদন্ত করা উচিত বলে মনে করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি এ-ও মনে করেন, চিকিৎসকদের কমিশন দেয়া হয় না বলে রোগীদের সেখানে সিটি স্ক্যান করার সুযোগ হয় না।

শুক্রবার (৩ জুলাই) সকালে জাগো নিউজের কাছে এসব কথা বলেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘গতকালকে (বৃহস্পতিবার) আমার সিটি স্ক্যান করালাম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সিটি করে আমি ইম্প্রেসড (মুগ্ধ)। তাদের ব্যবহারও উন্নত। তাদের এত ভালো মেশিন, এত হাইলি কোয়ালিফায়েড লোক, সবকিছু আছে কিন্তু রোগী নাই। এত বড় একটা ডিপার্টমেন্টে রোগী থাকবে না কেন? আমি দুইটা রোগী পাইছি। এটা সম্পর্কে সরকারের তদন্ত করা উচিত।’

এর কারণ কী হতে পারে জানতে চাইলে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘ডাক্তারকে কমিশন দেয় না। এজন্য জানাইতে হবে। সিটি স্ক্যানের জন্য সেখানে সরাসরি যেতে হবে।’

তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার উন্নতি হচ্ছে। তবে এখনও গলা ভালো হয় নাই।’

জাফরুল্লাহর সিটি স্ক্যানের বিষয়ে তার চিকিৎসক অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) মামুন মোস্তাফী বলেছেন, ‘জাফরুল্লাহ চৌধুরী নিউমোনিয়ার জটিলতায় ভুগছেন। তার ফুসফুসে তিন রকম জীবাণুর সংক্রমণ পাওয়া গেছে। আজ (গতকাল) ঢাকা মেডিকেল কলেজে সিটি স্ক্যান করা হয় এবং সিটি স্ক্যানে ফুসফুসে মাল্টিপল লাং অ্যাবসসেস শনাক্ত হয়েছে। মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশ অনুযায়ী অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া শুরু করা হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা তৃতীয়বার অবনতির পরে এখন ধীরে ধীরে উন্নতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে।’

পিডি/এসআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]