৩০ মিনিটেই ‘আইএমইআই’ বদলে ফেলেন হাবীব!

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৮:১০ পিএম, ১৩ জুলাই ২০২০

হরহামেশাই আমাদের চারপাশে মোবাইল চুরি বা ছিনতাইয়ের মতো ঘটনা ঘটছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চুরি যাওয়া মোবাইলের ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি (আইএমইআই) নম্বর ব্যবহার করে অনেক ক্ষেত্রেই চোরাই মোবাইল উদ্ধার করতে সক্ষম হন। এমনকি খুন বা বড় ধরনের অপরাধের সমাধানও করছেন এই আইএমইআই’র সূত্র ধরে। সেই আইএমইআই নম্বরই মাত্র ৩০ মিনিটে বদলে ফেলতে পারেন চট্টগ্রামের যুবক আহসান হাবীব।

রোববার (১২ জুলাই) নগরের রিয়াজুদ্দিন বাজার থেকে ‘সেল টেকনোলজি’ নামের একটি দোকানের মালিক আহসান হাবীবকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার সোনাকানিয়া ইউনিয়নের আবুল কাশেমের ছেলে।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আহসান হাবীব নামে ওই যুবক নিমিষেই মোবাইলের আইএমইআই পরিবর্তন করে ফেলতে পারেন। এ ক্ষেত্রে তিনি মাত্র ৩০ মিনিট সময় নেন। চোরাই যাওয়া ও নানা ধরনের অপরাধে ব্যবহৃত মোবাইলের আইএমইআই বদলে সেসব মোবাইল নামি দামি শপিংমলে বিক্রি করাই ছিল তার কাজ। এ কারণে অনেক অপরাধের সূত্রই মুছে ফেলা হয়। অপরাধীরাও তার এই সুযোগ কাজে লাগায়।'

তিনি আরও বলেন, ‘মোবাইল সেট ব্যবসার আড়ালে অর্থের বিনিময়ে তিনি মূলত এ কাজ করেন। মোবাইল ফোনের আইএমইআই পরিবর্তনের কাজে তিনি মূলত ইন্টারনেটভিত্তিক বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির সফটওয়্যার ব্যবহার করেন। পরে এসব মোবাইল ফোন বিক্রির জন্য চলে যায় নগরের নামি দামি শপিং সেন্টারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায়।’

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আহসান হাবীব পুলিশকে জানায়, নগরের বিভিন্ন স্থানে হারানো, চুরি হওয়া কিংবা অপরাধ কাজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নানা প্রক্রিয়ায় রিয়াজুদ্দিন বাজারকেন্দ্রিক বিভিন্ন মোবাইল দোকানে চলে আসে। পরে দোকানদাররা আহসান হাবীবের মাধ্যমে মোবাইল সেটের মূল আইএমইআই, প্যাটার্ন ও ফ্লাশ পরিবর্তন করেন।

ওসি জানান, আহসান হাবীবের সেল টেকনোলজি নামের ওই দোকানে অভিযান চালিয়ে এইচপি ব্র্যান্ডের দুটি ল্যাপটপ ও বিপুল পরিমাণ মোবাইল এবং মোবাইল সেটের আইএমইআই পরিবর্তনের বিভিন্ন কারিগরি সরঞ্জামও উদ্ধার করে পুলিশ।

আবু আজাদ/এমএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]