বিদ্যুৎ বিভাগের সব দফতর ইআরপির আওতায় আসা প্রয়োজন: প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৪ পিএম, ১৬ জুলাই ২০২০

বিদ্যুৎ বিভাগের সব দফতর দ্রুত এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিংয়ের (ইআরপি) আওতায় আসা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) বাসভবন থেকে ইআরপি সলিউশনের ওপর ভার্চুয়াল মিটিংয়ে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান। এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং (ইআরপি) হচ্ছে একটি প্রতিষ্ঠানের সব কার্যক্রমের সমন্বিত ব্যবস্থাপনা, যা প্রযুক্তিগতভাবে সফটওয়্যারের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়ে থাকে। ইআরপি সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও প্রতিবেদন তৈরির মাধ্যমে কাজ করে থাকে।

এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং বাস্তবায়নে আরও আন্তরিক হওয়া প্রয়োজন জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ইআরপি এমনভাবে করা দরকার যাতে সার্বিক অবস্থা সমন্বিত হয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য হাতের কাছে ড্যাশবোর্ডে পাওয়া যায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রযুক্তির প্রয়োগ যত বাড়বে, কাজ তত সহজ হবে। দুর্নীতি কমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়বে। গ্রাহক সেবা নিশ্চিত হবে। ইআরপি বাস্তবায়নে দৃশ্যমান অগ্রগতি গ্রাহকদের সাথে আস্থার সম্পর্ক আরও দৃঢ় করবে।’

বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে জানানো হয়, মাইক্রোসফট, কম্পিউটার সার্ভিস, টেকনো হেভেন ও টেকভিশনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভাগ ইআরপি বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে এইচআর (হিউম্যান রিসোর্স), ফিক্সড অ্যাসেট, অ্যাকাউন্টস এবং ফিন্যান্স সিস্টেম সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করে ডাটাবেজে সংযোজন করা হয়েছে। সভায় প্রযুক্তি ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি, রিপোর্টিং, ভ্যারিয়েবল অ্যাসেট, ইনভেন্টরি ম্যানেজমেন্ট ইনকর্পোরেট করা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিদ্যুৎ খাত দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সেবা খাত। ৯৭ ভাগ মানুষ এখন বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায়। এত বড় সেবা খাত সঠিকভাবে পরিচালনা করতে দ্রুত ডিজিটাল সেবা দিতে হবে। বিভাগের সব দফতর/প্রতিষ্ঠান ইআরপির আওতায় খুব দ্রুত আসা প্রয়োজন। ইআরপি সিস্টেম চালু হলে কেন্দ্রীয়ভাবেই সব মনিটর করা যাবে। গ্রাহকের সেবার মানও বৃদ্ধি পাবে।’

অনলাইনে অনুষ্ঠিত এই সভায় অন্যান্যের মধ্যে বিদ্যুৎ সচিব সুলতান আহমেদ, পিডিবির চেয়ারম্যান মো. বেলায়েত হোসেন, আরইবির চেয়ারম্যান মঈন উদ্দিন ও পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/এমএসএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]