ঈদে এক লাখ ক্ষুধার্ত মানুষকে আহার করাল শক্তি ফাউন্ডেশন

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০৬ পিএম, ০৪ আগস্ট ২০২০

প্রতি বছর ত্যাগের মহিমায় উদ্দীপ্ত হয়ে দেশের মানুষ একত্রে ঈদুল আজহা পালন করে। একে-অপরের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেন। এ বছর করোনাভাইরাস ও বন্যার প্রাদুর্ভাবের কারণে এই ত্যাগের প্রয়োজনীয়তা হয়ে উঠেছে আরও অর্থবহ। শক্তি ফাউন্ডেশনের কর্মীদের ঈদের বোনাসের একটি অংশ, ফাউন্ডেশনের নিজস্ব তহবিলসহ বিভিন্ন মহৎ ব্যক্তির অনুদানের সমন্বয়ে গড়ে ওঠা তহবিল দিয়ে এ ঈদে খাওয়ানো হয় এক লাখ ক্ষুধার্ত মানুষকে।

শক্তির কর্মী বাহিনীর মানুষের পাশে দাঁড়ানো এবং মানুষকে সহায়তা করার যে দৃঢ় ইচ্ছা, তা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে ঈদুল আজহা উপলক্ষে শক্তি ফাউন্ডেশন গ্রহণ করে এই মহৎ উদ্যোগ ‘এক লক্ষ আহার, এক লক্ষ হাসি’। তাদের এ উদ্যোগে প্রচার সহযোগিতায় ছিল রবি টেলিকম।

গতকাল সোমবার দেশজুড়ে শক্তি ফাউন্ডেশনের ৩৯৬টি শাখার কর্ম এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিশেষ করে এতিমখানা, প্রতিবন্ধী শিশুদের আশ্রম, বৃদ্ধাশ্রম ও অসহায় নারীদের আশ্রমে খাবার পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এছাড়া চলমান বন্যা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত টাঙ্গাইল, গাজীপুর, জামালপুর, গোপালগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, পাবনা, সিলেট, সুনামগঞ্জসহ শক্তির বিভিন্ন শাখা অফিসের কর্ম এলাকায় বন্যাদুর্গত মানুষের মাঝে বিশেষভাবে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

Tran

বন্যাদুর্গত এলাকায় বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে ও বাঁধের ওপর আশ্রয় নেয়া অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। বাদ পড়েননি এলাকার অতিদরিদ্র ও করোনার কারণে উপার্জনহীন হয়ে পড়া মানুষও। কোরবানির প্রকৃত তাৎপর্য মনে রেখে এবং সবাই মিলে মানুষের জন্য কিছু করার ইচ্ছা থেকে শক্তি ফাউন্ডেশন তাদের এ উদ্যোগে সম্পৃক্ত করেছে দেশ ও বিদেশে থাকা অংশগ্রহণে ইচ্ছুক সবাইকে।

সবার স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া এবং কঠোর পরিশ্রমে এক লাখ মানুষের মুখে এক বেলার আহার তুলে দেয়ার এ উদ্যোগ সফলভাবে পালন করতে পেরে শক্তি ফাউন্ডেশন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এবং ভবিষ্যতে আরও বড় আঙ্গিকে অনুরূপ প্রকল্প বাস্তবায়ন করার আশা প্রকাশ করে।

এমএআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]