‘দুর্নীতি নিয়ে প্রায়ই আলোচনা হয়- এটাকে স্বাগত জানাই’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৯ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

সম্প্রতি সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের অবাস্তব ব্যয়, অপ্রয়োজনীয় বিদেশ সফর, অপচয়, দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অসঙ্গতির বিষয়ে ইঙ্গিত করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ‘এই যে যন্ত্র, টুল বা প্রযুক্তি যাই বলি না কেন, যা নিয়ে আলোচনা করছি। সাংবাদিক বন্ধুদের কল্যাণে বেশ ঘোরাফেরা করছে। দুর্নীতি বিষয়ে প্রায়ই আলোচনা হয়। ভালো, আমরা এটাকে স্বাগত জানাই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, সেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সংগ্রামে এটা ভালো প্রযুক্তি হতে পারে। ভালো একটা টুল হতে পারে, অস্ত্র হতে পারে। এটাকে শাণিত করার প্রয়োজন আছে। নানাভাবে দেখা গেছে যে, এটা কাজে লাগে।’

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে বাংলাদেশ ই-গভর্নমেন্ট ইআরপি প্রকল্পের আওতায় প্রস্তুতকৃত মিটিং ম্যানেজমেন্ট, প্রকিউরমেন্ট এবং অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট মডিউল পরিকল্পনা বিভাগ, পরিকল্পনা কমিশন, এনএপিডি ও বিআইডিএস-এ বাস্তবায়ন কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

এম এ মান্নান বলেন, ‘একটা পারসেপশন মানুষের মধ্যে আসছে যে, আমাদের মধ্যে কিছু কিছু মন্দ বিষয় আছে, তারা চায় এগুলোকে আমরা দূর করি। সেই দূর করার কাজে আমরা সবাই একসঙ্গে কাজ করতে পারবো। এই টুলটি ব্যবহার করবো।’

‘অপচয়, দুর্নীতি, গাফিলতি, শ্লোথগতি– প্রত্যেককে মোকাবিলা করার জন্য আমরা নানাভাবে নানা অস্ত্র ব্যবহার করবো। এর মধ্যে একটি অস্ত্র হতে পারে তথ্যপ্রযুক্তি,’ যোগ করেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এছাড়া তথ্য ও যোগাযোগ বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম এবং পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক জানান, সরকারের কিছু গুরুত্বপূর্ণ সফটওয়ার নির্মাণ করেছে দেশীয় আইটি প্রতিষ্ঠান। দেশীয় প্রতিষ্ঠান দিয়ে কাজ করানোয় যে খরচ হয়েছে, বিদেশি প্রতিষ্ঠান দিয়ে কাজ করালে খরচ হতো আরও তিনগুণ বেশি। দেশীয় প্রতিষ্ঠান দিয়ে কাজ করানোয় একদিকে দেশের যেমন সক্ষমতা বাড়ছে, অন্যদিকে অর্থ সাশ্রয়ও হচ্ছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘অপচয় রোধে বিশেষ করে আপনি যে কয়েকটা উদাহরণ দিলেন, জ্ঞানের শার্টেজের কারণে এটা সম্ভব হয়েছিল। এগুলো থেকে আমরা রক্ষা পাবো।’

পিডি/এএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]