বেতন স্কেলের পার্থক্য সমহারে নির্ধারণ ও গ্রেড সংখ্যা কমানোর দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৩৪ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

নবম পে-স্কেল ঘোষণার মাধ্যমে বিদ্যমান তৈরি হওয়া বেতন বৈষম্য নিরসন করে গ্রেড অনুযায়ী বেতন স্কেলের পার্থক্য সমহারে নির্ধারণ ও গ্রেড সংখ্যা কমানোসহ ৮ দফা দাবি জানিয়েছে ১১-২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরাম।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে সংগঠনটির পক্ষ থেকে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানানো হয়।

তাদের অন্যান্য দাবিগুলো হলো- এক ও অভিন্ন নিয়োগ বিধি বাস্তবায়ন করা; সকল পদে পদোন্নতি বা ৫ বছর পরপর উচ্চতর গ্রেড প্রদান করা; টাইম স্কেল, সিলেকশন মেড, পুনর্বহালসহ বেতন জ্যেষ্ঠতা বজায় রাখা; সচিবালয়ের ন্যায় পদবি ও গ্রেড পরিবর্তন করা; সকল ভাতা বাজার চাহিদা অনুযায়ী পুনর্নির্ধারণ করা; নিম্ন বেতন ভোগীদের জন্য রেশন ও বিদ্যমান পেনশনের হার ৯০ শতাংশের পরিবর্তে ১০০ শতাংশ পুনর্নির্ধারণসহ পেনশন গ্রাচুইটির হার এক টাকা সমান ৫০০ টাকা করা এবং কাজের ধরন অনুযায়ী পদের নাম ও গ্রেড একীভূত করা।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহমুদুল হাসান বলেন, ১১-২০ গ্রেডের লাখ লাখ কর্মচারীকে বাদ দিয়ে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা সম্ভব না। তাই আমাদের এই দাবি আদায়ে বারবার কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে কোনো দৃশ্যমান পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি।

আগামী ২৯ অক্টোবরের মধ্যে দাবি আদায় না হলে ৩০ অক্টোবর ৬৪ জেলার প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন এবং এক নভেম্বর সকল জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এইউএ/এফআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]