‘আদিবাসী তরুণী গণধর্ষণে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি প্রশ্নবিদ্ধ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৩ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে আদিবাসী প্রতিবন্ধী তরুণীকে গণধর্ষণ ও লুটপাট, সিলেটে এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণ এবং বেনাপোলে দুই কিশোরীকে পাচারের চেষ্টা ও গণধর্ষণের ঘটনা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

এসব ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে জড়িতদের শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতার, যথাযথ আইনি ব্যবস্থাগ্রহণসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিও দাবি করেছে নারী ও শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সোচ্চার সংগঠনটি।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মহিলা পরিষদের সভাপতি ডা. ফওজিয়া মোসলেম এবং সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত যৌথ বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়।

বার্তায় বলা হয়, বুধবার দিবাগত রাতে খাগড়াছড়ি শহরের গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন একটি বাড়িতে রাতে দুর্বৃত্তরা দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে বাড়ির মালিক, তার স্ত্রী ও বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী মেয়ের হাত-মুখ বেঁধে ফেলে। পরে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে পাশের রুমে নিয়ে ধর্ষণ করে। তারা বাড়ির আলমিরা, ওয়ারড্রপ ঘেঁটে তিন ভরি স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকা, মোবাইল ফোন লুট করে বাইরে থেকে বাড়ির খিল লাগিয়ে পালিয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার সকালে গৃহকর্ত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাদের উদ্ধার করে। ভিকটিমকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা লক্ষ্য করছি যে, প্রতিনিয়ত কিশোরী, তরুণী ও নারীরা যৌন নিপীড়ন, ধর্ষণ, গণধর্ষণ, আত্মহত্যা ও হত্যাসহ নৃশংস নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।

বার্তায় আরও বলা হয়, দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে আদিবাসী তরুণীকে গণধর্ষণ ও লুটপাট, সিলেটে এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে নারীকে গণধর্ষণ এবং যশোরের বেনাপোলে দুই কিশোরীকে পাচারের চেষ্টা ও গণধর্ষণের ঘটনা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। সেই সঙ্গে সামাজিক অবক্ষয়, বিচারপ্রক্রিয়া দীর্ঘসূত্রতা ও বিচারহীনতার সংস্কৃতির ফলে এ ধরনের অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ প্রতিবন্ধী তরুণীকে গণধর্ষণ ও লুটপাট, এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে নারীকে গণধর্ষণ এবং বেনাপোলে দুই কিশোরীকে পাচারের চেষ্টা ও গণধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছে।

ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতার এবং সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থাগ্রহণসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছে। নির্যাতনের শিকার কিশোরী, তরুণী ও নারীর সুচিকিৎসাসহ তাদের ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের দাবি জানাচ্ছি ।

জেইউ/বিএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]