প্রবাসফেরত কর্মীর সংখ্যা দেড় লাখ ছাড়িয়েছে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:৩৬ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

প্রবাস ফেরত কর্মীর সংখ্যা দেড় লাখ ছাড়িয়েছে। গত ১ এপ্রিল থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন দেশ থেকে সর্বমোট এক লাখ ৫৫ হাজার ৬০ কর্মী দেশে ফিরেছেন। তাদের মধ্যে এক লাখ ৩৯ হাজার ৪৩৮ পুরুষ ও ১৫ হাজার ৫৮৪ জন মহিলা।

গত এক সপ্তাহে (১৯-২৫ সেপ্টেম্বর) বিভিন্ন দেশ থেকে ফিরেছেন ১৪ হাজারেরও বেশি প্রবাসী। প্রবাসফেরত মোট কর্মীর মধ্যে পাসপোর্টের মাধ্যমে এক লাখ ২৫ হাজার ২৬৫ ও ২৯ হাজার ৭৫৭ জন আউট পাসের মাধ্যমে ফিরেছেন।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, সর্বমোট ফেরত আসা প্রবাসীর মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৪২ হাজার ৬৩৫ জন ফেরত আসেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩৯ হাজার ৭১৮ ও মহিলা দুই হাজার ৯১৭ জন। কাজ না থাকায় কোম্পানি তাদের ফেরত পাঠায়। তবে করোনা পরিস্থিতি ভালো হলে তাদের ফের নেয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। দ্বিতীয়ত সৌদি থেকে ৩৬ হাজার ৩৪০ জন ফেরত এসেছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩০ হাজার ৯৩৯ ও মহিলা পাঁচ হাজার ৪০১ জন। তাদের অনেকে কারাভোগ করে আবার অনেকেই কাজ না থাকায় ফেরত আসতে বাধ্য হয়েছেন।

১ এপ্রিল থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রবাসফেরত কর্মীদের দেশওয়ারি হালনাগাদ পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, মালদ্বীপ থেকে ১০ হাজার ১১৭, সিঙ্গাপুর দুই হাজার ৭৯৪, কুয়েত ১০ হাজার ৩৯৭, বাহরাইন ৭৮৮, দক্ষিণ আফ্রিকা ৭১, কাতার ১৩ হাজার ৬৫৩, মালয়েশিয়া ছয় হাজার ৬৪১, দক্ষিণ কোরিয়া ১০০, থাইল্যান্ড ৩২, মিয়ানমার ৩৯, জর্ডান দুই হাজার ১৭৭, ভিয়েতনাম ১২১, কম্বোডিয়া ৪০, ইতালি ১৫১, ইরাক সাত হাজার ১০, শ্রীলঙ্কা ৫৪৮, মরিশাস ৩৪২, রাশিয়া ১০০, তুরস্ক পাঁচ হাজার ৫০২, লেবানন পাঁচ হাজার ২৮৫, নেপাল ৫৫, হংকং ১৬, জাপান আট, যুক্তরাজ্য ৫৩, লিবিয়া ১৫১ এবং অন্যান্য দেশ থেকে মোট ১২৮ জন ফেরত আসেন।

এমইউ/এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]