জামায়াতুল মুজাহিদীনের ৪ সদস্য গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৭:০৫ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জেএমবি’র (জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ) চার সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যার। এ সময় তাদের কাছ থেকে উগ্রবাদী বই, লিফলেট, একটি ল্যাপটপ এবং দুটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার চার জেএমবি সদস্য হলেন, মো. জাকির হোসেন (৫০), মো. আক্কাছ আলী (৫৫), মো. হারুন (৩৫) ও মো. ওসমান গনি মল্লিক (৪৮)। তারা ফুলবাড়িয়া উপজেলার বাসিন্দা।

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) বেলা আড়াইটার দিকে ময়মনসিংহ র‌্যার-১৪ এর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

এর আগে শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে জেলার ফুলবাড়িয়া জোরবাড়িয়া গ্রামের মো. আবুল হোসেন বুলবুলের বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যার-১৪ এর সিনিয়র এএসপি জোনায়েদ আফ্রাদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারেন যে, ফুলবাড়িয়া জোরবাড়িয়া গ্রামের মো. আবুল হোসেন বুলবুলের বাড়িতে কয়েকজন জঙ্গি নাশকতার পরিকল্পনা করছেন। এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যার-১৪ অভিযান চালালে পালিয়ে যাওয়ার সময় চারজনকে গ্রেফতার করা হয়।

‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় যে, দীর্ঘদিন ধরে তারা বিভিন্ন উগ্রবাদী বক্তার বয়ান শুনতো এবং তা শুনে উগ্রবাদের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়ে জঙ্গি সমর্থক হয়ে ওঠে। তারা নিজেদের জেএমবির সক্রিয় সদস্য হিসাবে পরিচয় দেয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আসামিরা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের জন্য বিভিন্ন কৌশলে কাজ করতো এবং মসজিদসহ বিভিন্ন জায়গায় গোপনে বৈঠক করে উগ্রবাদী ও নাশকতামূলক তালিম প্রদান করতো এবং সংগঠনের জন্য নিয়মিত চাঁদা তুলে তহবিল সংগ্রহে ভূমিকা রাখতো। এই তহবিল তারা বর্তমানে যেসব জেএমবি সদস্য জেলে বন্দি আছেন, তাদের হাজত থেকে বের করে এনে নতুনভাবে নাশকতা কার্যক্রম শুরু করাসহ সংগঠনের অন্যান্য খরচ বহনের কাজে ব্যবহার করতো। উগ্রবাদ কায়েম করার লক্ষ্যে তারা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে নাশকতার পরিকল্পনা করছিল বলে স্বীকার করে।’

গ্রেফতার চারজনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান র‌্যারের এই কর্মকর্তা।

মঞ্জুরুল ইসলাম/এমএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]