প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে লেখা ২টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৭ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনে স্মারকগ্রন্থ হিসেবে দুটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বইগুলো হলো- ‘পিতা থেকে কন্যা : স্বাধীনতা থেকে অর্থনৈতিক মুক্তি’ ও ‘নন্দিত নেত্রী শেখ হাসিনা গর্বিত বাংলাদেশ’।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বই দুটির মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় ‘পিতা থেকে কন্যা : স্বাধীনতা থেকে অর্থনৈতিক মুক্তি’ বইটির সম্পাদক কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ও পদ্মা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান চৌধুরী নাফিজ সরাফাত, প্রকাশক জয়ীতা প্রকাশনীর সত্ত্বাধিকারী ইয়াসিন কবীর জয় এবং বইটির প্রচ্ছদশিল্পী শাহরিয়ার খান এবং ‘নন্দিত নেত্রী শেখ হাসিনা গর্বিত বাংলাদেশ’ বইয়ের সম্পাদক কবি আসলাম সানী, প্রকাশক আ ন ম মিজানুর রহমান পাটোয়ারী, কবি লুৎফর চৌধুরী, সেলিনা সেলিসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই দুটি বই শেখ হাসিনা সম্পর্কে জানার জন্য ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সহায়তা করবে। বই দুটির সম্পাদক, প্রকাশক ও এর সঙ্গে যারা যুক্ত ছিলেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন। এই শুভ দিনে বই দুটির মোড়ক উন্মোচনের জন্য বেছে নেয়ায় তাদের ধন্যবাদ জানাই। এর ফলে দুটি বইয়ের প্রকাশকালকে মহিমান্বিত করেছে। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে মূল্যবান দলিল হিসেবে হাজির হয়েছে। বই দুটির নামকরণ যথার্থ হয়েছে।’

hasan-2.jpg

‘পিতা থেকে কন্যা : স্বাধীনতা থেকে অর্থনৈতিক মুক্তি’ বইটির সম্পাদক কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ও পদ্মা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান চৌধুরী নাফিজ সরাফাত বলেন, ‘বইটিতে রয়েছে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার জন্ম, বেড়ে ওঠা, ছাত্রজীবন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বগ্রহণ এবং সুদক্ষ ও বলিষ্ঠভাবে দল পরিচালনাসহ নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে জনরায়ে প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার বিবরণ। পরে ২০০১ সালে ষড়যন্ত্র ও কারচুপির নির্বাচনে তাঁকে পরাজিত করে চলে চারদলীয় জোট সরকারের দুঃশাসন ও অপশাসন এবং সেই ফলশ্রুতিতে অনিবার্যভাবে আসে সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার। সে সময় মিথ্যা মামলায় জননেত্রী শেখ হাসিনা কারাগারে যান। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি সরকার গঠন করে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা।’

তিনি বলেন, ‘এরপর ব্যবসা বাণিজ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে সমানের সারবতে অবস্থান করে উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। এ সময়ে তিনি নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলেন। বঙ্গবন্ধুর হত্যা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও দণ্ড কার্যকর করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন।’

জয়ীতা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত স্মারকগ্রন্থ ‘পিতা থেকে কন্যা : স্বাধীনতা থেকে অর্থনৈতিক মুক্তির’ মুখবন্ধ লিখেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। ১৫০ পৃষ্ঠার গ্রন্থটির ৫টি অধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধুর কন্যার নিরন্তর সংগ্রামের তথ্যবহুল বিবরণ ও বহু দুর্লভ ছবি দিয়ে সাজানো হয়েছে।’

‘নন্দিত নেত্রী শেখ হাসিনা গর্বিত বাংলাদেশ’ বইটি সম্পাদনা করেছেন কবি আসলাম সানী। বই সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘বইটি জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন কারাগারে ছিলেন তখন দেশের সকল মানুষের সঙ্গে কবি সাহিত্যিকরা কান্নায়, ক্ষোভে, শোকে ফেটে পড়েছিলেন। তার বহিঃপ্রকাশ এই বইয়ে। বইটিতে আমাদের দেশবরেণ্য শতাধিক কবি এখানে লিখেছেন। বইটি প্রকাশ করেছেন মিজান পাবলিসার্স।

এমইউএইচ/এফআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]