কেরানীগঞ্জে র‌্যাবের সোর্সকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:১৩ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলায় র‌্যাবের এক সোর্সকে দুর্বৃত্তরা ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এসআই মো. সাদ্দাম মোল্লা জানান, উপজেলার ভাগনা মাদরাসা রোড এলাকা থেকে সোমবার সকালে লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত মো. আলমগীর হোসেন (২২) বরিশাল জেলার মুলাদী থানার সফিপুর গ্রামের মোস্তফা বেপারির ছোট ছেলে। নিহত আলমগীর পেশায় একজন অটোরিকশাচালক। কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়নের শুভাঢ্যা উত্তর পাড়া এলাকার বাবা-মা, স্ত্রী ও এক সন্তান নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন তিনি।

এসআই সাদ্দাম জানান, দিবাগত শেষ রাতের দিকে স্থানীয়দের দেওয়া খবরে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধারের পর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের বুকের বাম পাশে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তরা আলমগীরকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

নিহতের বাবার বরাত দিয়ে এসআই সাদ্দাম আরও জানান, আলমগীর অটোরিকশা চালানোর পাশাপাশি র‌্যাবকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতেন। তিনি র‌্যাবের সোর্স ছিলেন।

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই জুয়েল বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

নিহতের বড় ভাই জুয়েল জানান, যারা আমার ভাইকে ছুরিকাঘাত করে নির্মমভাবে হত্যা করেছেন আমরা তাদের ফাঁসি চাই।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি কাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলা হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে খুনিদের শনাক্ত করে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

র‌্যাব-১০, সিপিসি-২ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার এএসপি মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, আলমগীর মাঝে মাঝে বিভিন্ন তথ্য দিয়ে র‌্যাবকে সহযোগিতা করতেন।

আসাদুজ্জামান সুমন, ঢাকা দক্ষিণ/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]