ক্ষেতে নেই সবজি, আলুতে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ১২:৪৬ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০২০

মাঠে এখন পরিবর্তনের হাওয়া। কৃষকরা বুনছেন নতুন সবজি। তবে বাজারে আসার মতো সবজি একেবারেই হাতেগোনা। ৬০ থেকে ৭০ টাকার নিচে কোনো সবজি নেই। এই সুযোগে ৩০ টাকার আলু এখন ৫৫ টাকায় ঠেকেছে। বিক্রেতারা বলছেন, শীতের সবজি বাজারে আসার আগ পর্যন্ত এমনই চড়া থাকবে দাম।

চট্টগ্রাম নগরের সবচেয়ে বড় ভাসমান বাজার বসে নগরের জামালখান থেকে বৌদ্ধ মন্দির মোড় পর্যন্ত রাস্তার দুই ধারে। প্রতিদিন ভোর থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত এখানে কয়েকশ বিক্রেতা ভ্যান গাড়িতে করে সবজি, মাছ এমনকি মসলাপাতিও বিক্রি করতে আনেন। কোতোয়ালির বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষ সকাল সকাল এখান থেকে বাজার করে নিয়ে যান।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উচ্চমূল্যেই বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি। ৫০ থেকে ৫৫ টাকায় মিলছে আলু। মিষ্টিকুমড়া ৪০ টাকা, লাউ ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৭০ টাকা, কচুর লতি ৬০ টাকা।

কাঁচামরিচ এখনো বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে-প্রতিকেজি ২০০ থেকে ২৫০ টাকায়। টমেটো ১০০ টাকা, পটল ৬০ টাকা, ধুন্দল বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়।

সবজির খুচরা বিক্রেতা জসিম উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘বেগুন বিক্রি করছেন ৭০ টাকা কেজি। ঢেঁড়স ৪০ টাকায়। আর করলা প্রতিকেজি বিক্রি করছেন ৮০ টাকা, যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছিল ৬৫ টাকা।’

jagonews24

এই সবজি বিক্রেতা আরও বলেন, ‘কাঁচা সবজি পচনশীল। তাই একদিন বিক্রি না হলে লোকসান গুনতে হয়। তাছাড়া বর্ষার শেষে এখন বাজারে সবজির আমদানি কম। এ কারণে গত সপ্তাহের চেয়ে আজ একটু দাম বেশি।’

আলু বিক্রেতা মহরম আলী বললেন, ‘সবজির দাম বেশি তাই মানুষ আলুর দিকে ঝুকেঁছে। এজন্য চাহিদা বেশি। কিন্তু আড়তে আলু নেই। নতুন আলু আসতে আরও দুই মাস সময় লাগবে। তাই আলুর দাম বেশি।’

খুচরা বিক্রেতা মাহবুব বলেন, ‘রিয়াজউদ্দিন বাজারের আড়ত থেকে পাইকারি মূল্যে পণ্য কিনে খুচরা দোকানিরা সবজিতে কেজিপ্রতি ১০-১৫ টাকা লাভ করেন। এখানে সবজির দাম বৃদ্ধির পেছনে তাদের কোনো হাত নেই। তাছাড়া বাজারে মালের সংকট রয়েছে।’

আবু আজাদ/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]