বিমানে খাবার-বিনোদনের ব্যবস্থা পুনরায় চালু করলো এমিরেটস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৪ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২০

করোনা মহামারির কারণে বন্ধ করে দেয়া ফ্লাইটে খাবারসহ বিলাসবহুল সেবা (ইন-ফ্লাইট সার্ভিস) পুনরায় চালু করছে এমিরেটস। যাত্রীদের পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করে এয়ারলাইনের পক্ষ থেকে এসব ইন-ফ্লাইট সার্ভিস চালু করা হচ্ছে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানিয়েছে এমিরেটস বাংলাদেশ।

এমিরেটস জানায়, শীত মৌসুমে যাত্রীদের জন্য পুষ্টিকর ওয়েলকাম ড্রিংকস দেয়া হবে। এছাড়া এমিরেটসের সর্বাধুনিক দ্বিতল এয়ারবাস এ-৩৮০ বিমানে ভ্রমণকারী প্রথম ও বিজনেস শ্রেণির যাত্রীরা অনবোর্ড লাউঞ্জ থেকে বিভিন্ন পানীয় ও প্যাকেটকৃত খাবার নিয়ে নিজ আসনে বসে খেতে পারবেন।

বিমান সংস্থাটি আরও জানায়, করোনা সংক্রমণ এড়াতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে লাউঞ্জে আসন সংখ্যাও সীমিত করা হয়েছে। যাত্রীরা ইচ্ছে করলে নিজ আসনে বসেই অর্ডার করতে পারবেন। নির্ধারিত কিছু সংখ্য বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজের বিজনেস ও প্রথম শ্রেণির সোশ্যাল এরিয়া থেকেও যাত্রীরা প্যাকেটকৃত স্ন্যাকস নিতে পারবেন।

এ-৩৮০ প্লেনে প্রথম শ্রেণির যাত্রীদের জন্য শাওয়ার স্পাও খুলে দেয়া হয়েছে। স্বতন্ত্র অ্যামিনিটি ব্যাগে বিলাসবহুল স্পা কিট পাবেন যাত্রীরা।

আগামী ১ নভেম্বর থেকে যাত্রীদের খাবার পরিবেশনে সিগনেচার সেবা ফিরিয়ে আনছে এমিরেটস। বিমান সংস্থাটি বলেছে, সকল শ্রেণির যাত্রীদের মাল্টি-কোর্স মিল ও সৌজন্যমূলক (কমপ্লিমেন্টারি) পানীয় সরবরাহ করা হবে। এছাড়া যাত্রীদের ফ্লাইটের আগে এমিরেটস অ্যাপের মাধ্যমে অলাইনে বা অফলাইনে খাবার মেন্যু ব্রাউজ করার সুযোগ দেবেন তারা।

আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ভ্রমণকারী যাত্রীরা কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হলে তাদের চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করবে এয়ারলাইন্সটি। ভ্রমণের পর ৩১ দিন পর্যন্ত এই অফারটি বহাল থাকবে।

এআর/এসআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]