মোংলা পোর্ট পৌরসভায় দ্রুত নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার দাবি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০২০

মোংলা পোর্ট পৌরসভায় দ্রুত সময়ে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) কাছে চিঠি দিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। সুজনের মোংলা শাখার পক্ষ থেকে এক লিখিত আবেদনে ৫ বছর আগে মেয়াদ উত্তীর্ণ ওই পৌরসভার নির্বাচনী তফসিল দ্রুত ঘোষণার দাবি জানানো হয়েছে।

সুজনের মোংলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. নূর আলম শেখের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশনে উপস্থিত হয়ে সিইসি বরাবর ওই লিখিত আবেদন জমা দেন।

পরে নূর আলম উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি শেষে যথাসম্ভব দ্রুত নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে এই নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি চলছে বলে কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

লিখিত আবেদনে বলা হয়েছে, দেশের প্রথম শ্রেণির পৌরসভা মোংলার মেয়াদ উত্তীর্ণের পর প্রায় ৫ বছর অতিবাহিত হলেও সাধারণ নির্বাচন আটকে আছে। সর্বশেষ ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারি এই পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচন না হওয়ায় ৫ বছরের জন্য নির্বাচিত হলেও অতিরিক্ত প্রায় ৫ বছর দায়িত্ব পালন করছেন মেয়র ও কাউন্সিলররা। এতে পৌরসভার উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। একই সঙ্গে সেখানে চলছে নানা অনিয়ম-দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতা। তাই মেয়াদ উত্তীর্ণ পৌরসভায় অবিলম্বে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় সচেতন নাগরিক সমাজ ও মোংলার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার নেতৃবৃন্দ।

আবেদনে আরও বলা হয়, পরিকল্পিতভাবে ভুয়া সীমানা জটিলতা মামলা এবং পরে ওয়ার্ড ভিভাজন চেয়ে মামলার কারণে মোংলা পৌরসভার নির্বাচন আটকে যায়। এই মুহূর্তে সকল মামলা নিষ্পত্তিসহ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সকল বাধা অপসারণ হয়েছে। তারপরও অজ্ঞাত কারণে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয়নি। ফলে এ নিয়ে জনমনে হতাশা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। কারণ পৌরসভার ভোটাররা দীর্ঘ ৫ বছর গণতান্ত্রিক অধিকার থেকে বঞ্চিত।

দেশে গণতন্ত্রের সুষ্ঠু বিকাশের স্বার্থে তাদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করা জরুরি। আর উন্নয়ন ও অগ্রগতি নিশ্চিত করতে পৌরসভায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি প্রয়োজন। এ অবস্থায় মোংলা পোর্ট পৌরসভায় সাধারণ নির্বাচনের জন্য দ্রুত নির্বাচনী তফশিল ঘোষণায় সিইসি’র হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে ওই আবেদনে।

এইচএস/এমএসএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]