নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি ঠেকানোর সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩১ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২০
ফাইল ছবি

চাল, আলু, পেঁয়াজের মতো নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি ঠেকানোর সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করার তাগিদ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির দশম বৈঠকে এ তাগিদ দেয়া হয়।

কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, তাহজীব আলম সিদ্দিকী, সেলিম আলতাফ জর্জ এবং সুলতানা নাদিরা অংশ নেন।

বৈঠকে ‘কোম্পানি (দ্বিতীয় সংশোধন) বিল, ২০২০’ পরীক্ষাপূর্বক রিপোর্ট, কোম্পানির ৫ শতাংশ শেয়ারধারীদের বার্ষিক সাধারণ সভায় আলোচ্যসূচি প্রদানের সুযোগ এবং ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

‘কোম্পানি (দ্বিতীয় সংশোধন) বিল, ২০২০’ সংশোধিত আকারে পাসের লক্ষ্যে জাতীয় সংসদে উপস্থাপনের জন্য সর্বসম্মতিক্রমে সুপারিশ করে কমিটি।

বৈঠকে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য আলু-পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে কমপক্ষে ৫-৬ মাস আগে কোন কোন পণ্যের চাহিদা কত তা নিরূপণ করার সুপারিশ করা হয়। আর দেশের খুচরা, পাইকারি এবং আমদানিকারকদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে ওই সব পণ্য জনগণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার উদ্দেশ্যে মজুদ করার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

আগামীতে এ ধরনের পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে তা মোকাবিলা করার জন্য অর্থ, বাণিজ্য, কৃষি এবং খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও সচিবদের সমন্বয়ে বৈঠক করে সমস্যা চিহ্নিতকরণ এবং তা থেকে উত্তরণের পদক্ষেপ নেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও বৈঠকে সুপারিশ করে কমিটি।

দেশের মানুষের নিজস্ব চাহিদা মেটানোর জন্য উৎপাদন বাড়ানোর ওপর কমিটি বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করে।

এছাড়া, বিগত রমজান মাসের মতো আগামী রমজানেও দ্রব্যমূল্য যেন স্থিতিশীল থাকে সে লক্ষ্যে এখনই ভোক্তাসাধারণের নিত্যপণ্যের (ডাল, তেল, চিনি, ছোলা, খেজুর এবং পেঁয়াজ ইত্যাদি) চাহিদা পূরণের জন্য আগাম কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে বলে বৈঠকে জানানো হয়।

বৈঠকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন সংস্থার প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এইচএস/এইচএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]