৮ দিন ধরে কাফনের কাপড়ে প্যানেলে নিয়োগপ্রত্যাশীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৫ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২০

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে টানা আট দিনের মতো অনশন কর্মসূচি পালন করছেন নিয়োগপ্রত্যাশীরা।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কের পাশে ফুটপাতে আন্দোলনকারীদের কাফনের কাপড় পরে অনশন করতে দেখা যায়।

প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগপ্রত্যাশী সংগঠনের সভাপতি আব্দুল কাদের জাগো নিউজকে বলেন, প্রাথমিকে প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে গত ৮ দিন ধরে খোলা আকাশের নিচে কাফনের কাপড় পরে আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি। এ আন্দোলনে যুক্ত হয়ে এ পর্যন্ত শতাধিক প্রার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের অনেকে হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে আবারও আন্দোলনে যুক্ত হচ্ছেন।

jagonews24

তিনি বলেন, মঙ্গলবার আন্দোলনে আমাদের ১০ জন অসুস্থ হয়ে যান। বর্তমানে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্যানেলভুক্ত নিয়োগের দাবিতে গত ১৮ দিন ধরে তাদের আন্দোলন শুরু হলেও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন চলছে আট দিন ধরে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা অনশন কর্মসূচি পালন করে যাব। প্রয়োজনে রাজপথে আমাদের প্রাণ যাবে, তবু আন্দোলন ছেড়ে বাড়ি ফিরব না।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ পরীক্ষায় মৌখিক পরীক্ষা থেকে বাদ পড়া প্রার্থীরা নিয়োগের দাবিতে চলতি অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে জাতীয় প্রেসক্লাব এবং মিরপুরে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) কার্যালয়ের সামনে কাফনের কাপড় পরে আন্দোলন শুরু করেন। পরে তারা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন কর্মসূচি শুরু করেন।

আন্দোলনকারীরা বলে আসছেন, গত ছয় বছরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটিমাত্র শিক্ষক নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে। এ পরীক্ষায় ২৪ লাখ প্রার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ৫৫ হাজার জন লিখিত পরীক্ষায় পাস করলেও ১৮ হাজার প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

jagonews24

তাদের ভাষ্য, দীর্ঘদিন থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট থাকলেও প্যানেলভুক্ত প্রার্থীদের মধ্য থেকে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে না। আগে এ পদ্ধতি অনুসরণ হলেও এখন তা মানা হচ্ছে না। এ কারণে বাধ্য হয়ে তারা লাগাতার কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দাবি বাস্তবায়নে তারা প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণও করেছেন।

যদিও প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগের দাবিকে অযৌক্তিক বলে জানিয়ে দিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম আল হোসেন। নিয়োগপ্রত্যাশীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেছেন, প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। বিধিমালা অনুযায়ী নিয়োগ পরীক্ষার মাধ্যমে যোগ্য ব্যক্তিদের মধ্য থেকে নিয়োগ দেয়া হবে।

এমএইচএম/এইচএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]