নানা কর্মসূচিতে ‘বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস’ পালিত

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৫৭ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০২০

‘ডায়াবেটিস সেবায় পার্থক্য আনতে পারেন নার্সরাই’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন।

দিবসটি উপলক্ষে ডায়াবেটিস সম্পর্কিত সচেতনতামূলক পোস্টার, লিফলেট বিতরণ ছাড়াও শনিবার (১৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টায় রোড শো (প্লাকার্ড হাতে সড়কের একপাশে দাঁড়িয়ে অবস্থান কর্মসূচি) পালিত হয়। করোনা পরিস্থিতির কারণে র্যালির পরিবর্তে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবার এই অভিনব কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচিতে বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি, বারডেম, ন্যাশনাল হেলথকেয়ার নেটওয়ার্ক (এনএইচএন) ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব হেলথ সায়েন্সেস হাসপাতালের (বিআইএইচএস) উদ্যোগে এ উপলক্ষে সকাল ৮টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত রমনা পার্কের ফটকসহ রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বিনামূল্যে ডায়াবেটিস নির্ণয় করা হয়।

সকাল সাড়ে ১০টায় বারডেম মিলনায়তনে রোগী ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মধ্যে আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১১টায় বারডেমের পঞ্চম তলায় অবস্থিত বাডাস কনফারেন্স রুমে ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। সভায় মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বারডেম নার্সিং কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ মিসেস ইরা দিব্রা।

সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এ কে আজাদ খানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মহাসচিব মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, বারডেম জেনারেল হাসপাতালের মহাপরিচালক অধ্যাপক এম কে আই কাইয়ুম চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

দিবসটি উপলক্ষে রেডিও-টেলিভিশনের মাধ্যমেও বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সমিতির নিজস্ব প্রকাশনা ‘কান্তি’ ও ‘ডায়াবেটিস নিউজলেটার’-এর বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করা হয়েছে। এছাড়া কয়েকটি সংবাদপত্রে এ উপলক্ষে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হয়। সারাদেশে অধিভুক্ত সমিতিগুলোও এ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। সমিতির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যেমন- এনএইচএন, বিআইএইচএস, ইব্রাহিম মেডিকেল কলেজ এবং ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতাল দিবসটি উপলক্ষে বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

উল্লেখ্য, ২০০৭ সাল থেকে এ দিনটি জাতিসংঘ ঘোষিত দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে।

এমইউ/এআরএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]