গৃহবধূ ইয়াছমিনকে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:১৯ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০২০
ইয়াছমিনের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন তার স্বামী রাফেল

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্বামীর দেয়া আগুনে ঝলসে যাওয়া গৃহবধূ ইয়াছমিনকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (২১ নভেম্বর) রাত ৯টার দিকে তাকে ভর্তি করা হয়। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন চিকিৎসক ডা. পার্থ শঙ্কর পাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ইয়াছমিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার কোমরের নিচের অংশ বেশি দগ্ধ হয়েছে।

এর আগে উন্নত চিকিৎসার জন্য দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে ঢাকায় পাঠায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

চমেক হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. রফিক উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আগুনে ইয়াছমিনের শরীরের প্রায় ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। পা-উরুসহ নিচের অংশ প্রায় পুরোটাই পুড়ে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ লক্ষ্যে বেলা ১১টার দিকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।’

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে যৌতুক নিয়ে গৃহবধূ ইয়াছমিন ও তার স্বামী রাফেলের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জেরে শুক্রবার ভোররাতে স্ত্রী ইয়াছমিনের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন রাফেল

দগ্ধ গৃহবধূ ইয়াছমিনকে শুক্রবার চমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী রাফেলকে গ্রেফতার করে।

এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]