নির্যাতিতদের সেবা নিশ্চিতে সরকারি-বেসরকারি সংস্থার সমন্বয় জরুরি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪১ এএম, ২৬ নভেম্বর ২০২০

সমাজের অবহেলিত ও নির্যাতিত মানুষের সেবা নিশ্চিত করতে সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাগুলোর কাজের সমন্বয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা।

বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তারা বলেন, সমন্বয়ের অভাবে অনেক সময় জনগণ প্রাপ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হন। বিশেষ করে নারীদের বঞ্চনার ঘটনা বেশী ঘটে। বঞ্চনা ও অবহেলার অবসান ঘটাতে সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান তারা।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) রাজধানীর রায়ের বাজারে ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ (ডাব্লিউবিবি) ট্রাস্ট মিলনায়তনে আয়োজিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপিএস’র পরিচালক খন্দকার আরিফুল ইসলাম। আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ হোসেন খোকন, পুলিশ কর্মকর্তা মো. আব্দুল লতিফ, সাংবাদিক নিখিল ভদ্র, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) সমাজ সেবা কর্মকর্তা রোকন-উজ-জামান, বিএনপিএস’র ঢাকা কেন্দ্রের (পশ্চিম) অফিস ইনচার্জ মো. হেলাল উদ্দিন, রায়ের বাজার পরিবেশ উন্নয়ন কমিউনিটি ফোরামের সভাপতি ডা. মো. রোকনুজ্জামান, রায়ের বাজার কমিউনিটি ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শিউলি আক্তার, হাজারীবাগ কমিউনিটি ফোরামের সভাপতি হোসনেয়ারা রাফেজা প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, চলমান করোনা মহামারি স্বাস্থ্য সংকটের পাশাপাশি নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতাও বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে। নির্যাতিত নারীদের আইনি সহয়তা প্রদান করে এমন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর হিসেবে গতবছরের তুলনায় চলতি বছর মার্চ-এপ্রিল মাস নাগাদ নারী নির্যাতনের ঘটনা ৭০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনার কারণে স্বাভাবিক সেবা কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। একইসঙ্গে কর্মসংস্থান হারানো মানুষের সংখ্যাও বাড়ছে। যা নতুন নতুন নির্যাতন ও নিপীড়নের ঘটনা জন্ম দিচ্ছে।

নারীসহ অবহেলিত জনগোষ্ঠীর সেবা নিশ্চিত করতে স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানিয়ে বক্তারা বলেন, লিঙ্গ, ধর্ম, গোষ্ঠী, নৃতাত্ত্বিক পরিচয়, প্রতিবন্ধকতা, যৌনতা নির্বিশেষে সব ধরনের ভুক্তভোগী ও সহিংসতা জয়ীর জন্য সুরক্ষা ও ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে হবে। ধর্ষণ-নির্যাতন ও নিপীড়নের শিকার ভুক্তভোগীদের মামলা পরিচালনাকালে লিঙ্গীয় সংবেদনশীল আচরণ করতে পুলিশ, আইনজীবী, বিচারক ও সমাজকর্মীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

এইচএস/এআরএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]