এখনই পল্লী বিদ্যুতের ভর্তুকি থেকে বের হওয়ার সুযোগ নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১২ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২০

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের এক কোটি ৬৩ লাখ লাইফ লাইনভুক্ত (০ থেকে ৫০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহারকারী) গ্রাহককে সরকার ভর্তুকি দেয় জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

তিনি বলেছেন, ‘দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে এখনই ভুর্তকি থেকে বের হওয়ার সুযোগ নেই।’

শনিবার (২৮ নভেম্বর) বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) সেন্টার ফর এনার্জি স্ট্যাডিজের আয়োজনে ‘ফরমুলেশন অফ ন্যাশনাল এনার্জি পলিসি’ শীর্ষক ওয়েবিনারের প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মানসম্পন্ন ও সাশ্রয়ী মূল্যে টেকসই বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সরবরাহের লক্ষ্যে সরকার নিরলসভাবে কাজ করছে। পাইপলাইনের মাধ্যমে দেশের সর্বত্র গ্যাস দেয়া সম্ভব নয় বিধায় এলপিজির ব্যবহার বাড়ানো হচ্ছে। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনকে এলপিজির মূল্য রেগুলেট করার অনুরোধ করা হয়েছে।’

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে আমাদের কল্পনার থেকেও অনেক বড় জায়গা তৈরি হয়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে। এ খাত পরিচালনার জন্য অনেক দক্ষ লোকবল প্রয়োজন। ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১ এর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে প্রযুক্তির প্রয়োগ ও ব্যবহার বাড়াতে হবে। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে অটোমেশন, স্মার্ট গ্রিড, স্ক্যাডা সেন্টার, আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবলিং বাস্তবায়ন হলে পুরো সেক্টরেরই আমূল পরিবর্তন হবে।’

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘উন্নয়নের ধারা ধরে রাখতে আমাদের প্রচুর প্রাথমিক জ্বালানি প্রয়োজন। ভাসমান টার্মিনালের মাধ্যমে এলএনজি আমদানি করা হচ্ছে। ল্যান্ড বেজড এলএনজি টার্মিনাল করা হচ্ছে। এলপিজি টার্মিনাল করার বিষয়টিও এগিয়ে যাচ্ছে। একইসঙ্গে প্রাকৃতিক গ্যাস অনুসন্ধানের কাজও সমান্তরালভাবে চলছে।’

ইলেকট্রিক যানবাহনের প্রসারে ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসের আহ্বান জানিয়ে নসরুল হামিদ বলেন, ‘ইলেকট্রিক ভেহিকল পরিবেশবান্ধব, সাশ্রয়ী ও তুলনামূলকভাবে ইঞ্জিনের দক্ষতা অনেক বেশি।’

ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ম. তামিম। বুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক সত্য প্রসাদ মজুমদারের সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর এনার্জি স্ট্যাডিজের পরিচালক অধ্যাপক ফারসিম এম. মোহাম্মদির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের বক্তব্য রাখেন- বুয়েটের অধ্যাপক ইজাজ হোসাইন ও বুয়েটের সাবেক অধ্যাপক এম নুরুল ইসলাম।

আরএমএম/এফআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]