ঢাকা ও রংপুরে বসছে নতুন রাডার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:২৪ পিএম, ০২ ডিসেম্বর ২০২০
ফাইল ছবি

পৃথিবীর পৃষ্ঠতলের তথ্য সরবরাহ করা বা আবহাওয়ামণ্ডলের পরিস্থিতি জানতে নতুন করে নির্মাণ করা হচ্ছে দুটি রাডার টাওয়ার। ঢাকা ও রংপুরে এ দুটি টাওয়ার নির্মাণ করা হবে। এতে অনুদান সহায়তায় দিচ্ছে জাপান সরকারের উন্নয়ন সংস্থা (জাইকা)।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১১তম বৈঠকে এসব তথ্য জানানো হয়।

বৈঠকে আবহাওয়া অধিদফতরের জানানো তথ্যে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, রাডার সিস্টেম স্থাপনের জন্য জাইকা ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) মধ্যে ১৮ হাজার ৬০০ লাখ টাকার অনুদান চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ২০১৫ সালের ২৪ জুন এ চুক্তি হয় এবং ‘ঢাকা ও রংপুরস্থ আবহাওয়া রাডারের উন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্প একনেকে অনুমোদিত হয়। প্রকল্পের মেয়াদ ২০২৩ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত ।

এ দুটি রাডার স্থাপনের জন্য সফল দরপত্র দাতার এবং আবহাওয়া অধিদফতরের মধ্যে ২০২০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি জাপানে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। এরই ধারাবাহিকতায় জাপানি পরামর্শক ও কন্ট্রাক্টর এবং আবহাওয়া অধিদফতরের মধ্যে ‘কিক অফ মিটিংয়ের’ মাধ্যমে গত ৫ এপ্রিল রাডার টাওয়ার নির্মাণকাজ শুরুর সময় নির্ধারিত ছিল। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে এর কাজ শুরু করা সম্ভব হয়নি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে রাডার টাওয়ার নির্মাণকাজ শুরু হবে।

এদিকে, সংসদ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বৈঠকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে সশস্ত্র বাহিনীর কার্যক্রমের সর্বশেষ অবস্থা, বিএনএ বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্স নির্মাণ, পতেঙ্গা চট্টগ্রাম (২য় সংশোধিত) প্রকল্পের অগ্রগতি, পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য ৯৯ কম্পোজিট ব্রিগেড স্থাপন প্রকল্পের অগ্রগতি নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। এসব কাজ দ্রুত শেষ করার সুপারিশ করে কমিটি।

এছাড়া জাতিসংঘ প্রদত্ত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য শান্তিরক্ষা মিশনে নারী শান্তিরক্ষী রাড়াতে কমিটিতে আলোচনা হয়।

সভাপতি মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটি সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান, মো. মোতাহার হোসেন, মো. নাসির উদ্দিন এবং বেগম নাহিদ ইজাহার খান অংশ নেন। এছাড়া বৈঠকে প্রতিরক্ষা সচিবসহ সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এইচএস/এসজে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]