স্থানীয় মামলার জট নিরসনে গ্রাম আদালত সক্রিয় রাখার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:১৮ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০

সারাদেশে স্থানীয় পর্যায়ের মামলা জট নিরসনে ও দ্রুত সময়ের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির জন্য গ্রাম আদালত সক্রিয় রাখার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ গ্রাম আদালত সহকারীরা।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে ঢাকার সেগুন বাগিচার সংহতি মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশ গ্রাম আদালত সহকারীবৃন্দ’ এর ব্যানারে দেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (দ্বিতীয় পর্যায়) প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানোসহ চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তরা এ দাবি জানান।

সভায় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ দ্বিতীয় পর্যায় প্রকল্পের আওতায় দেশের আটটি বিভাগের ২৮টি জেলায় ১২৮টি উপজেলায় ১ হাজার ৮০টি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত কার্যক্রম চলমান রয়েছে। চারটি সহযোগী বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগ এটি বাস্তবায়ন করছে। প্রকল্পটি ডিসেম্বরেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। মেয়াদ শেষে প্রকল্পটি সক্রিয় রাখা না হলে ১ হাজার ৮০ জন আদালত সহকারী কর্মসংস্থান হারাবেন। স্থানীয় পর্যায়ে ব্যাপক মামলা জট দেখা দেবে।

আলোচনা সভায় গ্রাম আদালত সহকারীরা প্রকল্পটির মেয়াদ বৃদ্ধি করাসহ গ্রাম আদালত সহকারীদের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবি জানান। পাশাপাশি গ্রাম আদালত সহকারীদের পরিবারগুলো যাতে কর্মহীন হয়ে চরম আর্থিক সংকটে না পড়ে সে জন্য প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা।

বাংলাদেশ গ্রাম আদালত সহকারী সমিতির সভাপতি মো. মাসুদ রানার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ ভূমিহীন আন্দোলনের প্রধান উপদেষ্টা মো. ইকবাল আমীন, বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ ভূমিহীন আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক শেখ নাসির উদ্দীন, বাংলাদেশ গ্রাম আদালত সহকারী সমিতির সহ-সভাপতি বিশ্বজিৎ রায়, এইচ এম স্বপন, অভিজিৎ বৈরাগী, মিলন মিয়া, সবুজ মিয়া, মো. শাহজাদা মুরাদ প্রমুখ।

এফএইচ/এমআরআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]