মুজিববর্ষ উপলক্ষে ইনসাবের আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২০ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০২০

 

মহান বিজয় দিবস ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ইমারত নির্মাণশ্রমিক ইউনিয়ন বাংলাদেশের (ইনসাব) উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) রাজধানীর তোপখানা রোডে অবস্থিত ইনসাবের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইনসাবের সভাপতি মিজানুর রহমান বাবুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ইনসাবের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুর রাজ্জাক, সহ-সভাপতি মো. হুমায়ুন কবির, মো. সোহরাব হোসেন, যুগ্ম-সম্পাদক মো. সাইদুল ইসলাম খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলী হোসেন, অর্থ সম্পাদক মো. রেজাউল ইসলাম রেজা, দফতর সম্পাদক মো. আজিজুর রহমান, ইনসাব নেতা মো. আলী আজগর শেখ মধু প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতীক ও প্রেরণার উৎস। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের স্রষ্টা। তিনি শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার জন্য আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। বাংলাদেশের মানুষের অধিকার আদায়ে তিনি ছিলেন আপোষহীন। বিপন্ন জীবনের মুখোমুখি দাঁড়িয়েও তিনি জনগণের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম অব্যাহত রেখেছেন। বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য ছিল শিল্প, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান ও দারিদ্র বিমোচন করে সকল মানুষের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়া। সেই লক্ষ্যে দেশে শিল্পবিপ্লব ঘটাতে নানা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলেন।

বক্তারা আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্বের নিপীড়িত মানুষের মুক্তির পথ প্রদর্শক, বঙ্গবন্ধু শুধু বাঙালি জাতি ও রাষ্ট্রের স্থপতিই নন, তিনি ছিলেন গোটা পৃথিবীর নিপীড়িত-বঞ্চিত শোষিত মানুষের নেতা। তার সুদক্ষ নেতৃত্বেই দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধ শেষে ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ পৃথিবীর বুকে স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশসহ আধুনিক বিশ্বের সকল অবকাঠামো নির্মাতা হলো নির্মাণশ্রমিকরা। বাংলাদেশের ৪০ লাখ নির্মাণশ্রমিক এখনো শ্রম আইন অনুযায়ী তার ন্যায্য অধিকার ও সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। তাদের বানানো অট্টালিকায় বড় লোকরা থাকলেও তাদের মাথা গোঁজার ঠাই নেই। কর্মস্থলে তাদের জীবনের নিরাপত্তা আজও প্রতিষ্ঠিত হয়নি। দীর্ঘদিন থেকে নির্মাণশ্রমিকরা পেনশন স্কিম ও রেশনিং চালু করার দাবি করে আসলেও আজও তা বাস্তবায়ন হয়নি।

ইএআর/এআরএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]