ডিসেম্বরে বিজিবির অভিযানে ৮৮ কোটি টাকার চোরাচালান ও মাদক জব্দ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:২০ পিএম, ০১ জানুয়ারি ২০২১

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) অভিযানে গেল ডিসেম্বরে ৮৮ কোটি ২৪ লাখেরও বেশি টাকা মূল্যের চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়েছে।

শুক্রবার (১ জানুয়ারি) বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

জব্দ মাদকগুলোর মধ্যে রয়েছে- ১০ লাখ ২৬ হাজার ৬১০ পিস ইয়াবা, ৭০ হাজার ১৩ বোতল ফেনসিডিল, ২১ হাজার ৭৪৭ বোতল বিদেশি মদ, এক হাজার ৪০৮ ক্যান বিয়ার, এক হাজার ৪২৩ কেজি গাঁজা, ৬ কেজি ২ গ্রাম হেরোইন, ১১ হাজার ৯৮টি উত্তেজক ইনজেকশন, ১৮ হাজার ৪৮৫টি অ্যানেগ্রা/সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ১২ লাখ ৬৯ হাজার ২৬৫টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

জব্দ অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে- ১২ কেজি ৯৭৭ গ্রাম স্বর্ণ, ১৪ কেজি ৩৪৪ গ্রাম রুপা, ১ হাজার ৩৩টি ইমিটেশনের গহনা, ৫৪ হাজার ৩০৪টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ৫ হাজার ৯৫৪টি শাড়ি, ৬৬৩টি থ্রিপিস/শার্টপিস, ৩ হাজার ৪৬৮টি তৈরি পোশাক, ৩৪৩ মিটার থান কাপড়, ৫ হাজার ১৯৮ ঘনফুট কাঠ, ৩ হাজার ৭৯২ কেজি চা পাতা, ২ হাজার ৬১০ কেজি কয়লা, ১টি ট্রাক, ১২টি প্রাইভেটকার, ৮টি পিকআপ, ২১টি সিএনজি/ইঞ্জিনচালিত অটোরিকশা এবং ৮৮টি মোটর সাইকেল। উদ্ধার অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে- ১টি পিস্তল, ১৪টি বন্দুক এবং ৯৫৯ রাউন্ড গুলি।

এছাড়া সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন প্রকার মাদক পাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ২৮২ জন চোরাচালানীকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ১৭৩ জন বাংলাদেশি নাগরিক ও ৮ জন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

এমইউ/এমএসএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]