উত্তরায় অপহৃত ব্যবসায়ী মিহির রায় উদ্ধার, গ্রেফতার দুই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫২ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২১

রাজধানীর উত্তরা থেকে অপহৃত ব্যবসায়ী মিহির রায়কে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন— মো. মিরাজ (৩৫) ও বৃষ্টি (২১)।

সোমবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেলে দক্ষিণখান থানার চেয়ারম্যান পাড়ায় অভিযান চালিয়ে ব্যবসায়ীকে উদ্ধার এবং অপহরণকারীদের আটক করা হয়। এসময় আটককৃতদের কাছ থেকে অপহরণে ব্যবহৃত ছুরি, ৫৭টি ইলেক্ট্রিক্যাল ক্যাবল টাইস, স্ক্রু ড্রাইভার জব্দ করা হয়। এছাড়া ভুক্তভোগীর স্ত্রীর কাছ থেকে বিকাশে নেয়া ৪৯ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) এ কে এম হাফিজ আক্তার।

পুলিশ কর্মকর্তা এ কে এম হাফিজ আক্তার জানান, মিহির রায়ের উত্তরা ৯নং সেক্টরে ফুড স্টোর নামে একটি ফাস্ট ফুডের দোকান আছে। গত ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি দোকানে খাওয়া শেষে মিহির রায়ের প্রশংসা শুরু করেন। পরে তিনি জানান— তার এক বড় ভাইয়ের অনুষ্ঠানে ৮০ প্যাকেট খাবার অর্ডার করাবেন। এজন্য তাকে সঙ্গে করে নিয়ে যান।

jagonews24

তিনি আরও জানান, পরদিন ১৪ জানুয়ারি ভিকটিমের স্ত্রীর মোবাইলে তার স্বামীর নম্বর থেকে কল আসে। তবে কথা না বলেই কেটে দেয়া হয়। কিছুক্ষণ পর অন্য একটি নম্বর থেকে মিহির রায়ের স্ত্রীকে কল দেয়া হয়। ফোনের ওপাশ থেকে মিহির রায়ের কণ্ঠ শুনতে পান তার স্ত্রী। মিহির রায় তার স্ত্রীকে জানান— তার হাত, পা ও চোখ বেঁধে রাখা হয়েছে। ২০ লক্ষ টাকা দিলে অপহরণকারীরা তাকে ছেড়ে দেবে। পরে মিহির রায়ের স্ত্রী অপহরণকারীদের দেয়া বিভিন্ন নম্বরে দুই লাখ ৯১ হাজার টাকা বিকাশ করেন। তবে আরও টাকা দাবি করে অপহরণকারীরা। পরে ১৬ জানুয়ারি মিহির রায়ের স্ত্রী উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার হাফিজ আক্তার জানান, মামলার পর অপহৃত ব্যবসায়ী মিহির রায়কে উদ্ধারে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উত্তরা জোনাল টিম। সোমবার (১৮ জানুয়ারি) দক্ষিণখানের চেয়ারম্যান পাড়ার হেজুর উদ্দিন রোডের একটি বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে গোয়েন্দা পুলিশ। ওই বাড়ির তৃতীয় তলার একটি ফ্লাট থেকে হাত-পা বাধাঁ অবস্থায় মিহির রায়কে উদ্ধার করা হয়। এসময় অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেন, ‘গ্রেফতার মিরাজ ও বৃষ্টি অপহরণ চক্রের সদস্য। তারা বিভিন্ন সময় অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে—অপহরণের পর তারা ভিকটিমের অশ্লীল ছবি তুলে রাখে। ভিকটিম বা তার পরিবার যদি পুলিশ বা অন্য কারও কাছে অভিযোগ করে তবে সেই ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখানো হয়।’

এএএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]