শেষদিনে জমজমাট প্রচারণায় মুখর বন্দর নগরী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:০২ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২১

বহুল প্রতীক্ষিত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী বুধবার (২৫ জানুয়ারি)। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী সোমবার (২৫ জানুয়ারি) মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে নির্বাচনের প্রচারণা। দুপুর গড়াতেই চট্টগ্রামে চলছে জমজমাট প্রচারণা। শেষ দিনের প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

এদিন দুপুরে বন্দরনগরীর বহদ্দারহাট এলাকা থেকে প্রচারণা শুরু করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী। মহানগর আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সাবেক মেয়র আ জ ম নাছিরসহ আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ এবং বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

এ সময় জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করে রেজাউল করিম বলেন, নগরপিতা হয়ে নয়, সেবক হিসেবে চট্টগ্রামবাসীর সেবার জন্য নির্বাচন করছি। ভোটের প্রচারে নেমে ভোটারদের যে স্বতঃস্ফূর্ততা দেখেছি, তাতে আমি বিজয় নিয়ে শতভাগ আশাবাদী।

এদিন নগরীর বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা ছিল ছাত্রলীগ কর্মীদের ‘জয় বাংলা’ স্লোগানে মুখরিত। রেজাউল করিম চৌধুরীর পক্ষে মিছিল দেখা গেছে নগরের জামালখান, মোমিন রোড, আগ্রাবাদ, চাঁন্দগাওসহ বিভিন্ন এলাকায়। এছাড়া বিভিন্ন প্রচার গাড়ি থেকে ভোট চাওয়া হচ্ছে।

jagonews24

এদিকে দলের ২০ নেতাকর্মীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ নিয়ে দিনের শুরু হয় চসিক নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী শাহাদাত হোসেনের। এদিন বেলা ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, রোববার (২৪ জানুয়ারি) রাতে নগরের বিভিন্ন এলাকায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর মধ্যে নগরের বাকলিয়া এলাকা থেকে বিএনপির এক নারীকর্মী ও তার ১২ বছরের শিশুকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।

নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত দলের ৬৯ নেতাকর্মীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তুলে নিয়ে গেছে বলে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেন শাহাদাত।

দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে তিনি প্রচারণার মাঠে নামেন। এ সময় বিপুল নেতাকর্মী নিয়ে তিনি নগরের লাভ লেইন, জুবলী রোড ও নিউমার্কেট এলাকায় প্রচারণা চালান।

শাহাদাত বলেন, ‘আমার রক্তের বিনিময়ে হলেও ভোটকেন্দ্রে থাকব। প্রতিটি কেন্দ্রে নির্বাচনী এজেন্ট যাতে রাখা যায় আমরা সেদিকে লক্ষ্য রাখব।’ তিনি পরিবর্তনের জন্য ধানের শীষে ভোট দিয়ে তাকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান।

jagonews24

নগরের দেওয়ানহাট এলাকায় মোটর শোভাযাত্রা হয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মোহাম্মদ জান্নাতুল ইসলামের সমর্থনে। এর আগে তিনি নগরের আদালত পাড়ায় প্রচারণা চালান। এদিকে দুপুরের পর বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী মাওলানা এম এ মতিনের পক্ষে মিছিল-সমাবেশ করে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র সেনা।

এছাড়া নগরের ৪১টি ওয়ার্ডের প্রতিটিতেই এই মুহূর্তে সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর প্রার্থীদের পক্ষে মিছিল ও শোভাযাত্রা চলছে।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার ৩২ ঘণ্টা আগে থেকে কোনো প্রচার চালানো যাবে না। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে চসিক নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা।

ওই সময় কোনো আক্রমণাত্মক কাজ বা বিশৃঙ্খলামূলক আচরণ করতে পারবেন না। ভোটার বা নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত বা দায়িত্বরত কোনো ব্যক্তিকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করা যাবে না। কোনো অস্ত্র বা শক্তি প্রদর্শন কিংবা ব্যবহার করা যাবে না। কেউ এ আইন ভঙ্গ করলে ন্যূনতম ছয় মাস ও অনধিক সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

আবু আজাদ/এসএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]