উন্নত প্রশিক্ষণেই কাজের গুণগত মান নিশ্চিত সম্ভব

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২১

প্রকৌশলী, ঠিকাদার এবং শ্রমিকদের উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেশে কাজের গুণগত মান নিশ্চিত এবং টেকসই করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) গাজীপুরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) নির্মাণ দক্ষতা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

তাজুল ইসলাম বলেন, টেকসই নির্মাণ কাজের জন্য প্রশিক্ষিত প্রকৌশলী, ঠিকাদার এবং শ্রমিক প্রয়োজন। প্রকৌশলীদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থাকলেও ঠিকাদার এবং শ্রমিকদের কোনো শিক্ষা বা প্রশিক্ষণ থাকে না। সে কারণে কাজের গুণগত মান নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত এবং টেকসই করা সম্ভব হয় না। এই বিষয়ে অনুধাবন করেই এলজিইডির অধীনে একটি প্রশিক্ষণ সেন্টার নির্মাণ করার নির্দেশনা দেয়া হয়

তিনি আরও বলেন, এখান থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণের পর গ্রাম অঞ্চলের অদক্ষ শ্রমিককে প্রশিক্ষিত করা সম্ভব হবে এবং এলজিইডি নির্মিত অবকাঠামোসমূহের গুণগত মান ও স্থায়িত্ব বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি আত্মকর্মসংস্থান তৈরি হবে।

মন্ত্রী বলেন, যে ঠিকাদার শিডিউল মেনে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মানসম্মত ও টেকসই কাজ করবে সেই ঠিকাদারকে আরও বেশি কাজ দেয়া হবে। আর যারা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ করতে পারবে না অথবা নিম্নমানের কাজ করবে তাদেরকে শুধু কালো তালিকাভুক্ত নয় তাদের বিরুদ্ধে সবধরনের আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। ডিজাইন বহির্ভূত কেউ কোনো কাজ করলে তাকে চিহ্নিত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

jagonews24

এলজিইডির কাজের গুণগত মান নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এলজিইডি ইতোপূর্বে যেসব রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট করেছে দেশের আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় সেগুলো 'লো কস্টে' করা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণের পর মানসম্মত এবং টেকসই কাজ করার জন্য ডিজাইন পরিবর্তন করা হয়েছে এবং ‘ইস্টিমেট’ বাড়ানো হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর ফলে এখন থেকে দেশে আর কোনো নিম্নমানের কাজ হবে না। এলজিইডির অধীনে সব কর্মকর্তা-কর্মচারী দেশের উন্নয়নের স্বার্থে টেকসই কাজ করার বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক এবং প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

ভিত্তিপ্রস্তর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম, স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মেজবাহ উদ্দিন, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ খান এবং এলজিইডির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

আইএইচআর/এসজে/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]