‘২০১৮ সালে নেট মিটারিং নির্দেশিকা হলেও গ্রাহকরা সুবিধা পায়নি’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৯ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১
ফাইল ছবি

২০১৮ সালে নেট মিটারিং নির্দেশিকা হলেও গ্রাহকরা এর সুবিধা তেমন পায়নি বললেই চলে মন্তব্য করেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) অনলাইনে টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (স্রেডা) আয়োজিত নেট মিটারিং রুফটপ সোলার নিয়ে বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলোর কর্মকর্তাদের নিয়ে প্রশিক্ষণের প্রথম ব্যাচের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

নেট মিটারিং হলো গ্রাহকদের আঙিনায় নবায়নযোগ্য শক্তি ব্যবহার করে বিদ্যুৎ উৎপাদন। গ্রাহক তার চাহিদা মিটিয়ে বাড়তি বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করে সরকার নির্ধারিত ট্যারিফ পেয়ে থাকেন।

স্রেডার চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘নেট মিটারিং রুফটপ সোলার কর্মসূচির প্রসারে বাস্তবসম্মত পরিকল্পনা প্রয়োজন। কারিগরি ও পরামর্শ সহযোগিতা পেলে গ্রাহকরা নেট মিটারিং পদ্ধতি ব্যবহারে উৎসাহিত হবে। আর্থিকভাবে সাশ্রয়ি নেট মিটারিং রুফটপ সোলার নিয়ে ব্যাপক জনসচেতনতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া যেতে পারে।’

একটি সুনির্দিষ্ট টার্গেট নেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মুজিববর্ষে কতজন গ্রাহক বা কত মেগাওয়াট নেট মিটারিং সিস্টেমের আওতাভুক্ত আসবে তার পরিকল্পনা থাকা আবশ্যক। আজ যারা প্রশিক্ষণ নিলেন তাদেরকেও নিজ নিজ এলাকায় নেট মিটারিং রুফটপ সোলার কর্মসূচির ব্যাপক প্রসারে কাজ করা উচিৎ।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘২০১৮ সালের ২৮ জুলাই নেট মিটারিং নির্দেশিকা উদ্বোধন করা হয়েছিল। কিন্তু গ্রাহকরা এর সুবিধা তেমন পায়নি বললেই চলে।’

বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, নবায়নযোগ্য জ্বালানি ভিত্তিক ডিস্ট্রিবিউটেড জেনারেশনকে উৎসাহিত করতে নেট মিটারিং ব্যবস্থা প্রবর্তনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। নেট মিটারিং পদ্ধতিতে গ্রাহক নিজ স্থাপনায় স্থাপিত নবায়নযোগ্য জ্বালানি ভিত্তিক সিস্টেমে উৎপাদিত বিদ্যুৎ নিজে ব্যবহার করে উদ্বৃত্ত বিদ্যুৎ বিতরণ গ্রিডে সরবরাহ করেন। এভাবে সরবরাহকৃত বিদ্যুতের জন্য সংশ্লিষ্ট গ্রাহকের বিদ্যুৎ বিল পরবর্তী মাসের সাথে সমন্বয় করা হয়। এ প্রক্রিয়ার ফলে গ্রাহকের বিদ্যুৎ খরচ সাশ্রয় হয়।

আরএমএম/ইএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]