পটিয়ার নবনির্বাচিত কাউন্সিলর রাজিব ৩ দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৮:১৫ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১
সরোয়ার কামাল রাজিব

চট্টগ্রামের পটিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় আবদুল মাবুদ নিহতের ঘটনা করা মামলায় পৌরসভার গোবিন্দরখীল ৮নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সরোয়ার কামাল রাজিবের তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পটিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিশ্বেশ্বর সিংহের আদালত এ আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, যেহেতু হত্যাকাণ্ডের ঘটনা, তাই আসামিকে জিজ্ঞাবাদের প্রয়োজন আছে। এ কারণে মামলার তদন্তের প্রয়োজনে আমরা আদালতের কাছে আসামির ৫ দিনের রিমান্ড চেয়েছিলাম। আদালত শুনানি শেষে আমাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

এ ব্যাপারে আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট নুর মিয়া বলেন, আমরা জামিনের আবেদন করছিলাম। এদিকে রাষ্ট্রপক্ষ রিমান্ডের আবেদন করেন। আমাদের আবেদন নামঞ্জুর করে সরোয়ার কামাল রাজিবকে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

নিহত আব্দুল মাবুদ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক কাউন্সিলর আব্দুল মান্নানের ভাই।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি চতুর্থ ধাপে পৌরসভা নির্বাচনে চট্টগ্রামের পটিয়ার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ গোবিন্দারখীল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী সরোয়ার কামাল রাজিব ও আবদুল মান্নানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে আবদুল মান্নানের বড় ভাই আবদুল মাবুদ নিহত হন।

সেদিন দুপুর ১টার দিকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের গোবিন্দারখীল এলাকা থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী সরোয়ার কামাল রাজিবকে আটক করা হয়। সন্ধ্যায় রাজিবের জয়ের খবর আসলেও পুলিশ হেফাজতে ছিলেন তিনি। পরে রাত ১০টার দিকে সরোয়ার কামাল রাজিবসহ ৭ জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ১৫ জনের বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় হত্যা মামলা করেন পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী ও নিহত আবদুল মাবুদের ছোট ভাই আবদুল মান্নান। ওই মামলায় রাজিবকে রাতে গ্রেফতার দেখানো হয়।

এদিকে আজ দুপুরে সংবাদ সম্মেলন লিখিত অভিযোগে মামলার বাদী আব্দুল মান্নান জানান, হত্যা মামলা করার পর থেকে মামলার বাদী ও সাক্ষীদের বিভিন্নভাবে হত্যার হুমকি ও মামলা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে নিহতের পরিবারের বিরুদ্ধে বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে তদন্ত কাজে ব্যাহতের চেষ্টা করা হচ্ছে। সরোয়ার কামাল রাজিব একজন কিশোর গ্যাং লিডার এবং বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত আমি তার ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নিহত আব্দুল মাবুদের ছেলে ফাহিমুল ইসলাম ও রাকিবুল ইসলাম, পরিবারের সদস্য আব্দুল মালেক, আব্দুর রহমান, মো. বদিউল আলম, আব্দুল আলমসহ এলাকাবাসী।

আবু আজাদ/এমএসএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]